নদী পার হয়ে ভারতে প্রবেশ বাংলাদেশী তরুণের, আমার করোনা হয়েছে, চিকিৎসা করুন

করোনার বিধ্বংসী গ্রাসে ছেয়ে গেছে গোটা বিশ্ব। আর এই আতঙ্কের কারণে সবাই এখন ঘরের মধ্যে বন্দি অবস্থায় রয়েছে। এমনকি বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশগুলির করোনা ভাইরাস এর সঙ্গে কোনোভাবেই যুদ্ধে বেড়ে উঠছে না। কারণ সেসব দেশেও আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে মৃত্যুর সংখ্যাও বাড়ছে। কিন্তু সেই হিসাবে ভারত এখনো অনেকটা স্থিতিশীল অবস্থায় আছে। আর এর কারণ হিসেবে অনেকেই বলছেন ভারত ঠিক সময়ে লকডাউন এর পদক্ষেপ নিয়েছে। তা না হলে এতদিনে ভারতের অবস্থা অনেকটা খারাপ হয়ে যেত।

আর এবার সেই ভরসাতেই বাংলাদেশ থেকে এক যুবক চলে এসেছেন ভারতে। সেই তরুণ কুশিয়ারা নদী সাঁতরে পার হয়ে অসমে পৌঁছান। আর সাঁতরেই বাংলাদেশের সীমানা পার করে ভারতে পৌঁছান। আর একটি গ্রামে পৌঁছে সে সবাইকে জানায় যে তার করোনা রোগ হয়েছে তাকে সাহায্য করা হোক। আর এই কথা শুনেই গ্রামের সমস্ত মানুষ পালিয়ে গিয়েছেন। কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলে বিএসএফ উপস্থিত হয় এবং তাকে বাংলাদেশের সেনার হাতে তুলে দেয়।

জানা গেছে যে এই যুবকের বাড়ি অসমের মোবারকপুর থেকে মাত্র চার কিলোমিটার দূরে। আর ঠিক সেই কারণেই সে নদী সাঁতরে পার হয়ে সকাল সাতটার মধ্যে অসমে এসে উপস্থিত হয়। তাকে গ্রামবাসীরা দেখেই অচেন হিসেবে চিনতে পারে। আর জিজ্ঞাসা করতেই সে জানায় যে সে বাংলাদেশ থেকে নদী সাঁতরে পার হয়ে ভারতে এসেছে কারণ তার করোনা রোগ হয়েছে আর সে চিকিৎসা হওয়ার জন্য এসেছে। কিন্তু এই খবর পেয়ে বিএসএফ সেখানে এসে উপস্থিত হয়। এরপর তাকে বাংলাদেশের সেনাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় কিন্তু সেই যুবক সত্যিকারের কোনো রোগে আক্রান্ত হয়েছে কিনা তা এখনো পর্যন্ত জানা যায়নি।

হাই বন্ধুরা, বাংলায় সমস্ত রকম চাঞ্চল্যকর খবর অতি শীঘ্র পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.