৬ বছরের বাচ্চা গেম খেলতে খেলতে জলের মতো উড়িয়ে দিল টাকা

আজকাল মা বাবারা তাদের কাজে ব্যস্ত থাকে ঘরে যদি তাদের সন্তান থাকে সেই সন্তানদের চুপ করে রেখে দেওয়ার জন্য মস্ত বড় একটি অস্ত্র হলো মোবাইল , যা হাতে পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাচ্চাদের সমস্ত রকম ভাবনা চিন্তা দূরে চলে যায় সেটা দুষ্টমি হোক কিংবা অন্য রকম খেলা। মোবাইলটা যেন বড়দের সাথে সাথে বাচ্চাদের ও জীবনের একটা বিশেষ অঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে। (6 years old kid George Johnson plays an online game and fuels his mom Jessica Johnson’s 11 lakh taka)

আমরা সকলেই লক্ষ্য করি আজকালকার বাচ্চাদের মধ্যে ফোনের চাহিদা বেশি। মোবাইল তাদের এক বিশেষভাবে আকৃষ্ট করে যারা জন্য তারা বাইরের সেই পুরনো দিনের মতো লুকোচুরি খেলা থেকে শুরু করে আরো অনেক ধরনের খেলা সেগুলোতে মন বসাতে পারে না। মা-বাবারা ভাবে তাদের বাচ্চা ঘরের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু মোবাইলে যে কতটা ক্ষতিকর হতে পারে সেটা হয়তো কোন কিছু ঘটার পরে মানুষ বুঝতে পারে।

আজকাল অনেক ধরনেরই গেম ফোনে থাকে রিয়েল ক্যাশ। এমন গেম যেখানে টাকা দিয়ে জিনিসপত্র কিনে খেলে আপনি টাকা আবার উপার্জন করতে পারেন। কিন্তু এই টাকা দিয়ে খেলতে গিয়েই যে কত টাকা হারিয়ে যায় তা হয়তো হিসাব রাখেন তারাই যাদের টাকা চলে যায়। গেমের চক্করে পড়ে এইবার প্রায় ১১ লাখ টাকা হারালো এক মহিলা। মহিলার নাম জেসিকা, তিনিও ওয়ার্ক ফ্রম হোম করেন, তার জন্য ছেলেকে শান্ত রাখতে হাতে ধরিয়ে দিয়েছিলেন আইপ্যাড, আর তাতেই ঘটলো বিপত্তি।

৬ বছরের জর্জ জনসন গেম খেলতে খেলতে মায়ের করা লাখ টাকা উড়িয়ে দিল। গেমটিতে সে রকম সোনার গয়নার বাক্স, গোল্ড রিং ইত্যাদি কিনতে গিয়ে খরচ করল অনেক ডলার। জেসিকা একদিন লক্ষ করে তার একাউন্ট থেকে প্রায় ২৫ বার কেউ টাকা তুলেছে। প্রথমদিকে জেসিকা ভেবেছিল যে, কোনরকম জালিয়াতি করা হচ্ছে তার সাথে, কিন্তু পরে যখন সে ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করে তখন সমস্ত ব্যাপারটা সামনে আসে। সে বুঝতে পারে যে তার ছেলে গেম খেলতে গিয়ে এত টাকা উড়িয়ে দিয়েছে।

A popular online game Sonic Cash scene
একটি বিখ্যাত অনলাইন গেম সনিক ক্যাশ এর একটি দৃশ্য (Credit : Sonic Cash Online game)

এরপর জেসিকা অ্যাপেলের সঙ্গে যখন কথা বলেন, তখন সমস্ত বিষয়ে বুঝে টাকাগুলি রিফান্ড এর কথা বলেন কিন্তু অ্যাপেল সেটি দিতে রাজি নয়। অ্যাপেল এর পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, এইরকম ভাবে যাতে কেউ গেমের মাধ্যমে টাকা না নষ্ট করতে পারে তার জন্য একটি সেটিং রয়েছে ওই সেটিংটি আপনার উচিত ছিল চালু করে রাখা। জেসিকা তখন একটি সংবাদ মাধ্যমে এই বিষয়ে বলেন যে, যদি কোন গেমে এই ধরনের টাকা নয়ছয় করার রাস্তা লুকিয়ে থাকে, তাহলে সেটা অনেকটাই জালিয়াতের মতই ব্যাপার। এগুলোকে অবশ্যই উচিত বন্ধ করা দরকার।