লোডশেডিং, ঝড়ের মধ্যেই অনুষ্ঠান, পুরনো স্মৃতি রোমন্থনে চোখে জল অপরাজিতা র

বাঙ্গালীদের কাছে নববর্ষ মানেই একরাশ নস্টালজিয়া। পহেলা বৈশাখ থেকে শুরু করে কবিগুরুর জন্মদিন পর্যন্ত প্রত্যেক বাড়িতে লেগে থাকত অনুষ্ঠান। গান নাচ অথবা আবৃতির মধ্যে দিয়ে আমরা নববর্ষকে বরণ করতাম। কখনো হত কারেন্ট অফ কখনো বা ঝড়, কিন্তু তার মাঝখানে আমাদের আনন্দের কোনো খামতি থাকত না। এইরকমই কিছু নববর্ষের স্মৃতি নিয়ে কথা বললেন অপরাজিতা আঢ্য। সঙ্গে ছিল তার প্রাণ খোলা হাসি। (Poila Boisakh ১৪২৮: Tollywood News: Actress aparajita adhy shares her past baisakh smriti)

কর্ম ব্যস্ত জীবনের মধ্যে মাঝে মাঝে মনে পড়ে যায় হালখাতার মিষ্টির বাক্স এবং নতুন জামার গন্ধ। অভিনেত্রী জানিয়েছেন, তিনি হলেন হাওড়ার মেয়ে। তার কাছে পহেলা বৈশাখ মানেই ছিল বাবার সঙ্গে হালখাতা করতে যাওয়া। রীতিমতো মিষ্টির বাক্স বুনি আনন্দ পেতেন তিনি। তার সঙ্গে অবশ্যই থাকতো কোলড্রিংস। তখন নববর্ষে নতুন নেলপালিশ অথবা ওড়না কিনে সেই দিন পালন করতেন তিনি।

হালখাতার পাশাপাশি অবশ্যই ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিয়ের পর তাদের বাড়িতে প্রথম পুজো হয়েছিল। বিয়ের আগে হত পাড়ায় পাড়ায় অনুষ্ঠান। লুচি আর আলুর দম এই ছিল তাদের চাহিদা। নববর্ষের দিন অথবা আগের দিন কালবৈশাখী ঝড় হত। সেই ঝড়ের মাঝে মাঝেই উড়ে যেত পাড়ার প্যান্ডেল। একবার তো এমন ঝড় হল যার ফলে লোডশেডিং হয়ে গেল। গোটা এলাকায় লন্ঠনের আলোয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করতে হলো। সে সমস্ত স্মৃতি মনে পড়লে আনন্দের পাশাপাশি চোখে চলে আসে জল।

অপরাজিতা ছোটবেলা থেকেই নাচ করতেন। তার নাচের ইশকুল প্রথম অনুষ্ঠানের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে নববর্ষের স্মৃতি। তারা এখনো মনে আছে যে, তার স্কুলের প্রথম নাচের অনুষ্ঠান ছিল নববর্ষের দিন। মাত্র ২২ টাকা দিয়ে তিনি একই আইলাইনার কিনেছিলেন। সেই আইলাইনার দিয়ে সকলের চোখ একে দিয়েছিলেন তিনি। সেই অনুষ্ঠানে তার নাচ দেখে খুশি হয়ে সকলে তাকে টাকা দেয়, এই ছিল তার জীবনের প্রথম অর্জিত অর্থ।

এখন বেশিরভাগ সময় শুটিংয়ে কেটে যায় নববর্ষের সময়টা। তবে তবুও পুরনো রীতি বজায় রাখার জন্য পাড়ায় গিয়ে বড়দের সঙ্গে দেখা করে আসেন অপরাজিতা। আর বাড়িতে পুজো হলে সবাই আসেন। এই ভাবেই নাচ গানের মধ্যে দিয়ে এখনো নববর্ষের দিন কাটান অপরাজিতা আঢ্য।

actress aparajita adhy shares her past baisakh smriti in 1428
লোডশেডিং, ঝড়ের মধ্যেই অনুষ্ঠান, পুরনো স্মৃতি রোমন্থনে চোখে জল অপরাজিতা র