কৃষ্ণকলি তিয়াসা কে ছেড়ে কাজের মাসি মালতির প্রেমে পড়লেন সুবান, ভিডিও ভাইরাল

কবিরা লিখে গেছেন,”পিরিতি এই জগতে জাতি কুলের ধার ধারে না!” সত্যিই তো প্রেম ভালোবাসা হলো জাতি-কুল-ধর্ম, উচ্চ-নিচ সবকিছুর ঊর্ধ্বে। আর নতুন করে এই ব্যাপারটি ঘটে গেল। জি বাংলার কৃষ্ণকলি ধারাবাহিকের শ্যামা অর্থাৎ তিয়াসা রায়ের স্বামীর নাম সুবান। সম্প্রতি তাদের দাম্পত্য জীবনের সমস্যা নিয়ে নেটদুনিয়ায় জোর চর্চা চলছে। এর মধ্যেই তিয়াসা স্বামীর নতুন গার্লফ্রেন্ডের নাম খুঁজে পাওয়া গেলো। (Ami Tumi O Maloti actor Suban Roy, husband of Krishnakoli actress Tiyasha Roy to do romance with kajer meye Malati)

সুবান মূলত ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করতে খুব পছন্দ করেন। কিন্তু পরিচালক এবং প্রযোজকরা এবার তাকে দিয়ে এক ভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন। জি বাংলায় এক নতুন ওয়েব সিরিজে তাকে আলাদা ভূমিকায় অভিনয় করতে দেখা যাবে এবার। আর এই ওয়েব সিরিজ এর নাম ‘আমি তুমি ও মালতি।’

আর এই ওয়েব সিরিজে তিনি ধীরে ধীরে কাজের মেয়ের প্রেমে আবদ্ধ হয়ে পড়েন। আর সেখানে তিনি ‘রণ’-র ভূমিকায় অভিনয় করবেন। এই সিরিয়ালে মুখ্য চরিত্রে থাকছেন মিমি দত্ত, ফারহান এবং শ্রীতমা ভট্টাচার্য্য। এমনকি সংবাদমাধ্যমে অভিনেতা তার চরিত্রটির সম্পর্কে জানালেন।

তার কথায়,”এটি একটি ফ্যামিলি ড্রামা। দিদির বাড়ির কাজের মেয়ের প্রেমে পড়ে রণ। জামাইবাবু ও কাজের মেয়ের মধ্যে সম্পর্ক নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় দিদির বাড়িতে হাজির হয় রণ, এরপর নিজেই সেই মেয়ের প্রেমে পড়ে যায় আস্তে আস্তে।” সুতরাং আপনার নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন এই গল্পটি কেমন মজাদার হতে চলেছে।

ইতিমধ্যে এই ওয়েবসিরিজটির ট্রেলার জি বাংলার ইউটিউব চ্যানেলে এবং টিভিতে দেখানো হয়েছে। আর জানানো হয়েছে যে আগামী ২৫ জুলাই রবিবার সন্ধ্যা ছয়টায় জি বাংলা সিনেমা তে এই ওয়েব সিরিজটি দেখানো হবে। দর্শকেরা ইতিমধ্যে দিন গোনা শুরু করে দিয়েছেন এই বিশেষ ওয়েবসিরিজটি দেখার জন্য।

এই ওয়েব সিরিজটি ছাড়াও সুবহানের ঝুলিতে রয়েছে আরও একটি ধারাবাহিক। সান বাংলার নতুন ধারাবাহিক ‘সুন্দরী’-তে ভিলেনের ভূমিকায় অভিনয় করবেন তিনি। তিনি নিজেও এরকম ভিলেনের চরিত্রে অভিনয় করতে খুব পছন্দ করেন বলে জানালেন। অপরদিকে বর্তমানে সুবান এবং তিয়াসার সম্পর্ক নিয়ে নেট দুনিয়ায় রীতিমতো চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে। এ নিয়ে অভিনেতা মন্তব্য করেছেন।

তিনি জানালেন,”বাইরে থেকে অন্য কেউ আমাদের সম্পর্কে তিক্ততার সৃষ্টি করছে, সেই কথাগুলি সরাসরি ইগো তে গিয়ে লাগছে। যার ফলে এই সম্পর্কটি বেশিদিন নাও টিকতে পারে।” তাহলে কি ভাবছেন আপনারা? তিয়াসা স্বামী সুবান কি তাদের মধ্যে ছাড়াছাড়ির ইঙ্গিত দিলেন, নাকি অন্য কিছু? অবশ্য সব কথা সময় বলবে।