হিন্দির দৌরাত্ম্য রুখতে FM এ বাংলা গান চালানোর পক্ষে সরব হলেন শিল্পী উজ্জয়নী ও মধুরা

আমরা প্রত্যেকেই দেখতে পাচ্ছি পশ্চিম বাংলার বুকে দিনের পর দিন হিন্দি ভাষার এগ্রেসিভ ভাব বা দৌরাত্ম্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর বাংলার মাটিতেই থেকে এফএম রেডিও স্টেশনগুলি নিজেদের ব্যবসা বাড়ানোর জন্য প্রচন্ড পরিমানে হিন্দি সিনেমার গানগুলো চালায়। অতিরিক্ত পরিমাণে এই হিন্দি গান চালানো বাংলা গানগুলি প্রচার এর সুযোগ হারিয়ে ফেলছে। আর ফলে বাংলা ভাষা ও অনেক লোকের কাছে পৌঁছানোর পরিমাণ কমে যাচ্ছে।

সম্প্রতিককালে রেডিও স্টেশনে বাংলা গান প্রচার করার জন্য প্রতিবাদ করে বাংলা বাংলা ব্যান্ড ভূমির সৌমিত্র এবং দীপঙ্কর বাগচীর মতো বেশ কিছু বিখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী। এছাড়াও বাংলা পক্ষের দাবিকে সমর্থন জানিয়ে বাংলা গান বেশি বেশি করে প্রচার করার দাবিতে গলা মেলালেন এখনকার প্রজন্মের দুজন বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী উজ্জয়নী মুখার্জিও মধুরা ভট্টাচার্য।

বাংলা পক্ষের প্রতিবাদকে সমর্থন করে উজ্জয়নী মুখার্জী বলেছেন,”বাংলা পক্ষের প্রতিবাদের সুর এই পুনরায় বাংলা গান নিয়ে কিছু কথা বলার সাহস খুঁজে পেলাম। আমি নিজে স্কুল লাইফে এভাবে বাংলা গান শুনেই বড় হয়েছি। 106.2 আমার এফএম এ তখন শুধুমাত্র বাংলা গাড়ি চালানো হতো। তবে বাংলা সিনেমার গান নয় বাংলা শিল্পীদের মৌলিক গানগুলি বাজানো হতো। ছোটবেলা থেকেই লোপামুদ্রাদি, রুপঙ্করদা, শুভমিতা দি, শ্রীকান্তদার গান শুনে বড় হতে পেরেছি। কিন্তু আমাদের প্রজন্ম সেই সুযোগ গুলোই হারিয়ে ফেলছে।”

এফ এম এ বাংলা গান চাই। এবার সোচ্চার হলেন এই প্রজন্মের বিখ্যাত গায়িকা Ujjaini Mukherjee. আমাদের সকলের লড়াই এটা। বাংলায় ব্যবসা করে অথচ বাংলা গান বাজাবে না, সঞ্চালক হিন্দিতে কথা বলবে- এ জিনিস মেনে নেওয়া যায় না৷ প্রত্যেকে বেশি করে বাংলা গান শোনো, বাংলা সিনেমা দেখো। আর এফ এম এ বাংলা গান চালানোর দাবিতে সোচ্চার হও।উজ্জয়িনী দিকে ধন্যবাদ সোচ্চার হওয়ার জন্য।

Posted by Kausik Maiti on Saturday, July 18, 2020

এমনকি তিনি হতাশ হয়ে বলেন, আমাদের কাজ গুলো লোকের কাছে পৌঁছাতে পারছে না। কিন্তু আগে আমাদের আগের প্রজন্মের কাছে সেই সুযোগ গুলো ছিল। শুধুমাত্র ইন্টারনেট ব্যবহার করেই মানুষের দ্বারে দ্বারে পৌঁছানো সম্ভব। এই কারণে রেডিও স্টেশন গুলি কে এগিয়ে আসতে হবে। আমি ব্যক্তিগতভাবে জানি রেডিও স্টেশনগুলি হিন্দি গান বাজানো নিয়ে তাদের হেড অফিস গুলো প্রেশার ক্রিয়েট করে। কিন্তু আমার অনুরোধ করব বাংলা গান তথা বাংলা ভাষাকে বাঁচিয়ে রাখতে আপনারা কিছুটা হলেও বাংলা গানের প্রচার করুন।

বাংলা পক্ষের দাবিতেই সুর মিলিয়ে অপর এক সঙ্গীত মধুরা ভট্টাচার্য এফএম এ বাংলা গান বাজানোর পক্ষে বলেন, “আমরা অনেকদিন ধরে সংগ্রাম করছি কিন্তু কোন ফলাফল হাতে আসছে না। এখনকার লোকেরা বলেন বাংলায় নাকি আগের মত সেই ভালো ভালো গান গুলো উপহার দিতে পারে না। কিন্তু এই কথাটি সম্পূর্ণ ভুল। এই প্রজন্মের অনেক ভালো ভালো সঙ্গীতজ্ঞ রয়েছেন যারা তাদের নিজস্বতাকে তুলে ধরছেন কিন্তু লোকের কাছে কিছুতেই পৌঁছাতে পারছেন না। নিজের ক্ষেত্রে এরকম ঘটেছে। কোন মৌলিক গান তৈরি করার পর আমি বিভিন্ন এফএম চ্যানেলের কাছে বলেছি কিন্তু তারা দায়বদ্ধতার কারণে সেই গান চালাতে ব্যর্থ হয়েছে। তাই এফেমের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আমার একান্ত অনুরোধ আপনারা বাংলা চ্যানেলে বাংলা গান এত কম চালালে কি করে বাংলা গান বেঁচে থাকবে বলুন। বাংলা গান তথা বাংলা ভাষাকে টিকিয়ে রাখতে বাংলা গানের প্রচার প্রয়োজন।”

এফ এম বাংলা গান আজকাল খুবই কম বাজে। এফ এম এ বাংলা গান বাজানোর দাবিতে সোচ্চার হলেন এই প্রজন্মের তারকা গায়িকা Madhuraa দি। আমরা সকলেই ছোটো থেকে এফ এম এ বাংলা গান শুনে বড় হয়েছি। কিন্তু বাংলা গান এফ এম থেকে হারিয়ে যাচ্ছে, এফ এম এর বড় কর্তাদের নির্দেশ আছে। এটা বাংলা, আমাদের ভাষা বাংলা। তাই বাংলায় ব্যবসা করা সব এফ এম এ বাংলা গান বাজাতে হবে। মধুরা দিকে ধন্যবাদ আমাদের আবেদনে সাড়া দেওয়ার জন্য।বাঙালিকে আরও বেশি করে বাংলা গান শুনতে হবে।

Posted by Kausik Maiti on Friday, July 17, 2020

ছাড়াও তিনি শ্রোতাদের উদ্দেশ্য করে ও কয়েকটি কথা বলেছেন। রেডিও চ্যানেলের কনটেন্ট গুলি বা কিরকম এর গান বাজানো হবে তা নির্ভর করে শ্রোতাদের অনুরোধের ওপর। আপনারা যদি বেশি করে বাংলা গান শোনানোর অনুরোধ করেন তাহলে ওরা নিশ্চয়ই বাংলা গান চালাবে আর এভাবে বাংলা গান অনেক লোকের কাছে পৌঁছাতে সক্ষম হবে।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *