আকাঙ্ক্ষার হত্যাকারী প্রেমিক উদয়ন দাস কে শাস্তি দিল বাঁকুড়া আদালত

আপনারা হয়তো অনেক বার শুনেছেন যে, প্রেম মানুষকে অন্ধ করে দেয়। আর সম্পর্কের টানা-পোঁড়েনে দুজনের মধ্যে প্রচন্ড পরিমাণে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। আর এক্ষেত্রে প্রেমিকাকে খুন করে ফেলেছেন ওই যুবক (Man Kills His Girlfriend Due To Anger)। তো চলুন আসল ব্যাপারটা জেনে নেই।

উদয়ন দাসের প্রেমিকার নাম আকাঙ্ক্ষা শর্মা। তারা মধ্যপ্রদেশের ভূপালে ছিলেন। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসের ২৭ তারিখে উদয়ন তার প্রেমিকাকে খুন করেন (Udayan Das Kills His Girlfriend Akanksha Sharma)। এর কারণ হিসেবে জানা গিয়েছে যে তাদের মধ্যে প্রচন্ড পরিমানে ঝগড়াঝাঁটি হয়েছিল।

আর এরপরে আকাঙ্ক্ষাকে ওই যুবক গলা টিপে ধরে। আর এভাবেই তার প্রেমিকাকে খুন করে ফেলে। এরপর লোহার বাক্সবন্দি করে দেন ওই মৃতদেহটিকে। এরপর ওই বাক্সের উপরে কংক্রিট কেটে ফেলেন। তবে ঘটনাটি এখানেই শেষ নয়।

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে জেনেছে যে, ওই যুবক তার বাবা-মাকেও খুন করেছিল। আর তাদেরকে খুন করে বাগানে গর্ত খুঁড়ে পুঁতে রেখে দিয়েছে। এরপর ভোপাল থেকে তাকে এরেস্ট করে পুলিশ। এরপর এই ঘটনার প্রায় এক বছর পর ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে উদয়নের বাড়ি থেকে তার প্রেমিকার দেহের অংশবিশেষ পাওয়া যায়। পরবর্তীকালে উদয়ন কে বাঁকুড়া আদালতে তোলা হয়।

ফেব্রুয়ারি মাসের ৭ তারিখে উদয়ন কে জেলে পোরা হয়। এরপর গত এপ্রিল মাসের ৩০ তারিখে উদয়নের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আর এরপর সে দোষী সাব্যস্ত হয়। আর এই তিনটি খুনের দায়ে উদয়ন কে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড শাস্তি দেয় বাঁকুড়া আদালত (Bankura Court Punishes Udayan Das As Lifetime Jail For 3 Murders)।