বাঙালির গর্ব চন্দ্রা দত্ত আবিষ্কার করলো করোনার ভ্যাকসিন

বর্তমানে সারা বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস এক মহামারী আকার ধারণ করে ত্রাসের সৃষ্টি করেছে। আর এই ভাইরাসের বিনাশ কিভাবে হবে সেই আসার মুখাপেক্ষী হয়ে বসে রয়েছে গোটা দেশের তথা গোটা বিশ্বের লোকজন। আর কবেই বা আবিষ্কার হবে করোনা ভাইরাসের ওষুধ? এই খবর পাওয়ার আশায় গোটা বিশ্বের সবাই মুখাপেক্ষী হয়ে বসে রয়েছে। বিশ্বের সমস্ত বড় বড় বিজ্ঞানীরা খাওয়া-দাওয়া সমস্ত কিছু ভুলে আবিষ্কারের চেষ্টা করে চলেছেন। সাম্প্রতিক খবর অনুসারে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষক দল আবিষ্কারের নিকট পৌঁছে গিয়েছে।

আর গর্বের বিষয় হলো বাঙালির গর্ব কলকাতার তরুণী চন্দ্রা দত্ত এই দলের এক গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। জানা গেছে যে অক্সফোর্ডের ওই গবেষক দলের মধ্যে কলকাতার 34 বছর বয়সী চন্দ্রা দত্ত রয়েছে। আর তার দায়িত্ব কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স ম্যানেজার হিসেবে। টালিগঞ্জের বাসিন্দা সে। স্কুল জীবন হয়েছে গোখলে মেমোরিয়াল গালস স্কুল থেকে। স্কুল পাশ করার পর হেরিটেজ ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং ও টেকনোলজি পড়াশোনা সম্পন্ন করেন। এরপর 2009 সালে বায়োটেকনোলজিতে করার জন্য লন্ডনে চলে যান তিনি।আর সেখান থেকেই কাজ শুরু করেন।

এবার জানা যায় গত বৃহস্পতিবার মানুষের শরীরে পরীক্ষামূলকভাবে প্রয়োগ করা হয়েছিল ওই ওষুধ। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি সূত্রের খবর অনুযায়ী যদি ওষুধটি পাশ করে যায় তাহলে আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসেই পাওয়া যাবে সাধারণ মানুষের জন্য ভ্যাকসিন। চন্দ্রা দত্ত জানিয়েছেন যে অক্সফোর্ডের বিজ্ঞানীদের সঙ্গে কাজ করতে পেরে নিজেকে অত্যন্ত গর্বিত মনে করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.