জোর করে সিঁদুর পড়ানো হল অনুশকাকে, নেটদুনিয়ায় ছড়ালো বিতর্ক

আজকাল আধুনিক মহিলারা বছর ঘুরতে না ঘুরতেই তাদের সিঁদুরের দৈর্ঘ্য কমাতে শুরু করে দেন, যদিও কয়েক বছর পর রীতিমতো আতস কাঁচ দিয়ে দেখতে হয়। তবে সিঁদুর পড়া না পড়া সম্পূর্ণ একটি নারীর ব্যক্তিগত, এই নিয়ে কোনো কথা বলা যায়না। তো জোর করে সিঁদুর পড়ানো হল অনুশকাকে, নেটদুনিয়ায় ছড়ালো বিতর্ক। (Bollywood Xossip : Controversy created on social media as Anushka Sharma, the wife of Virat Kohli is put on Sindoor Sindur by Computer graphics)

অনেকেই আছেন কর্ম ক্ষেত্রে পোশাকের সঙ্গে মানানসই ছোট করে সিঁদুর পড়েন।আবার অনেকেই বিবাহের অষ্টমঙ্গলা পর শাখা পলা নোয়া সবকিছু খুলে অফিসে যান। ভালোবাসা সম্পূর্ণ মন থেকে হয়, এর সঙ্গে পোশাক-আশাকের কোন সম্পর্ক নেই। তাই কাউকে জোর করে কিছু শেখানো যায় না।

সম্প্রতি দীপাবলি উপলক্ষে সাদা রঙের সালোয়ার কামিজ পড়ে একটি ছবি শেয়ার করেছেন অনুষ্কা শর্মা। তিনি এখন রয়েছেন দুবাইতে। আইপিএল চলাকালীন তিনি উড়িয়েছিলেন দুবাইতে শুধুমাত্র স্বামীকে সঙ্গ দেবার জন্য। এই ছবিতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে অনুষ্কার বেবি বাম্প। সাদা রঙের পোশাকে তাকে দেখতে লাগছে অসামান্যা। তবে এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর একটি ইউটিউব চ্যানেলের প্রকাশ করা হয়। এরপরই বাঁধে শোরগোল। (ANushka Sharma Baby Bump)

ইউটিউব চ্যানেলে অনুষ্কার পোশাকের সঙ্গে যোগ করে দেওয়া হয় কপালে একটু সিঁদুর। এই সিদুরটি যে পুরোটাই কম্পিউটারে কারসাজি তা বলাই বাহুল্য। তবে এভাবে কপালে সিঁদুর পরিয়ে দেওয়ার নিয়ে রীতিমতো শুরু হয়ে যায় বিতর্ক। অনুষ্কার কপালে কেন এভাবে সিঁদুর পরিয়ে দেওয়া হয়েছে তা নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তোলেন।

বিয়ের পর একজন নারী সিঁদুর পরবে কি পরবে না তা সম্পূর্ণ তার নিজস্ব বিষয়। জোর করে কখনো কাউকে সিঁদুর পরিয়ে দেওয়া উচিত নয় বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে। এখনো যদি আপনি এই ছবিটি না দেখে থাকেন তাহলে এখনি দেখে নিন অনুষ্কা শর্মার ভাইরাল হয়ে যাওয়া বিতর্কিত এই ছবিটি।

Controversy created on social media as Anushka Sharma is put on Sindoor by Computer graphics
জোর করে সিঁদুর পড়ানো হল অনুশকাকে, নেটদুনিয়ায় ছড়ালো বিতর্ক (Credit : Twitter)