“হিংসা ছাড়া পৃথিবীতে কোনো দিন কোনো সমাধান হয়নি”- দিলীপ ঘোষ

শিরোনাম

1.পশ্চিম মেদিনীপুরের দাতন নামক এলাকায় শনিবার এক পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। আর এর প্রতিবাদে পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছেন বিজেপির লোক জনেরা।

2. ইকো পার্কে বিশ্ব যোগ দিবস এর একটি প্রোগ্রামে রবিবার উপস্থিত ছিলেন দিলীপ ঘোষ।

3. তিনি বলেন, “হিংসা ছাড়া পৃথিবীতে কখনোই কোনো সমাধান ঘটেনি। হিংসার বিরুদ্ধে যদি কেউ মন্তব্য করে তাহলে লোকে তাকে নির্বোধ ও কাপুরুষ বলবে।”

নিজের বক্তব্য থেকে এক পাও পিছু হটছে রাজি নন দিলীপ ঘোষ। এমনকি তার দেওয়া স্লোগান ‘বদলাও হবে বদলও হবে ‘-এরপর থেকে রাজ্যে অশান্তি বৃদ্ধি পেয়েছে। শনিবারে পশ্চিম মেদিনীপুর দাঁতন এলাকায় এক শ্রমিক মারা যান। আর এই ঘটনায় বিজেপির লোকেরা পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করেছে। কিন্তু এতেও যে দিলীপ ঘোষ নিজের অবস্থান থেকে সরবেন না রবিবার আরো একবার খোলসা করে বলে দিলেন।

এর সাথে বিজেপির রাজ্য সভাপতি ব্যক্ত করলেন মহাভারতে শ্রীকৃষ্ণের ভূমিকা ।রবিবার বিশ্ব যোগ দিবস এর একটি প্রোগ্রামে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানেই এক সংবাদ মাধ্যমে বক্তৃতায় বলেন, “ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কি যুদ্ধের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল? তার কি ভালো হতো যদি সে প্যান্ডেল খাটিয়ে রাম কথা বলতো? আসলে কাপুরুষরাই ক্ষমার কথা মুখে আনে।”

তিনি আরো বলেন, “হিংসা ছাড়া পৃথিবীতে কখনই কোন কিছু সম্ভব হয়নি। হিংসার পাল্টা হিসেবে যদি কেউ মন্ত্র বলতে থাকে তাহলে তাকে লোকের নির্বোধ ও কাপুরুষ বলে অভিহিত করবে।”

হিংসার এই মেসেজের পরিপ্রেক্ষিতে এদিন দিলীপ ঘোষ ভারত-চীন সংঘাতের প্রসঙ্গ টেনে আনেন। তিনি এই ব্যাপারে বলেন, “আজ যদি আমরা ইন্ডিয়া আর চীন কে ভাই ভাই বলতে থাকি তাহলে ওরা কি আমাদের কথা মেনে নেবে? নাকি আমাদের ভারতমাতার আরো কিছুটা জায়গা কেড়ে নেবে?”

বিজেপির রাজ্য সভাপতির পরিষ্কার কথা, “যার সঙ্গে যে রকম ব্যবহার করলে হয় ঠিক সেরকম ব্যবহার করা উচিত।”

তবে দুঃখের ব্যাপার হল বদলা দেওয়ার কথা বলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি নিজের দলেরই সংখ্যাগরিষ্ঠদের সমর্থন পেতে অক্ষম হয়েছেন। এই জরুরী অবস্থায় দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নাকি দলের পক্ষে খারাপ বার্তা বয়ে আনবে বলে অধিকাংশেরই মতামত।

বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাস গুপ্তের কোথায়, “তৃণমূল হিংসার রাজনীতি করছে। মানুষ রেগে অগ্নিশর্মা হয়ে আছে। তাই 2021 ক্ষমতায় আসলে একমাত্র বিজেপি আসবে বাংলায়। কিন্তু নিজের হাতে কখনোই আইন-শৃঙ্খলা তুলে নিতে পারেনা বিজেপি। দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।”

মুকুল রায় বলেছেন, “দিলীপ কি বলছেন না জেনে তার কোন উত্তর আমি দেব না। তবে আমি বলতে পারি, বিজেপির পথ হিংসা নয়।”

দলের মধ্যে তার কথার বিরোধিতা হলেও হতে পারে জেনেও দিলীপ কেন এই ধরনের কথা বলে চলেছেন? তবে রাজ্য বিজেপির এক অংশের মতে, দলের নিচুতলার কর্মীদের মানসিকভাবে উৎফুল্ল করতেই রাজ্য সভাপতি এই ধরনের মন্তব্য করেছেন।

রবিবার দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নিয়ে পাল্টা জবাব দেয় তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তার মত অনুযায়ী, “বাংলার মানুষ হিংসা পছন্দ করেন না। সেই মাটিতে দাঁড়িয়ে যারা হিংসার জয়গান করে, মানুষ তাদের ছুঁড়ে ফেলে দেবে। বাংলা জয় করার স্বপ্ন বিজেপির কাছে অধরাই থেকে যাবে। সেই পথে আরো এক পা এগিয়ে গেলেন দিলীপ ঘোষেরা।”

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *