পেটের জ্বালায় ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক পাথর ভাঙছে

এই দুনিয়া বড় বিচিত্র। আজ হয়তো কারো সব আছে। কিন্তু কালকে গিয়ে সে কি পরিস্থিতিতে দাঁড়াবে তা কিন্তু সে নিজেও বলতে পারে না। এমনই একটা ঘটনার সম্মুখীন হয়ে উঠল ভারতবাসী।

ভারতের হুইল চেয়ার ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক ইনজুরির কারণে হুইল চেয়ারে বসতে বাধ্য হন। এখনো তিনি হুইল চেয়ারে বসে। কিন্তু আর্থিক অনটনের জন্য তাকে পাথর ভাঙার কাজ করতে হচ্ছে। এই প্রাক্তন ক্যাপ্টেন এর নাম রাজেন্দ্র সিং ধামি Rajendra Singh Dhami. তার শরীরের 90 শতাংশ অংশই কার্য করতে অক্ষম। তা সত্ত্বেও তাকে খিদের জ্বালায় অতি কষ্টের শ্রমিকের কাজ করতে হচ্ছে। অতীতে তিনি ওই হাত দিয়ে ব্যাট বল ধরতেন। অথচ এখন সেই হাত দিয়েই পাথর আর হাতুড়ি দিয়ে কাজ করতে হচ্ছে।

এখন করোনা ভাইরাসের কারণে গোটা দেশজুড়ে লকডাউন চালু করেছে সরকার। এর ফলে প্রতিটি পেশার লোকজনই প্রচুর সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া এও দেখা গেছে যে অনেক মানুষ তাদের নিজেদের জীবিকা অর্জনের পদ্ধতি ছেড়ে দিয়েছেন। তারা অন্য পদ্ধতিতে নিজেদের জীবিকা অর্জন করছেন। কিন্তু এক্ষেত্রে একটা কথা বলতেই হবে যে ভারতে ক্রিকেট মানে হলো রাজার খেলা। আর এত উদ্দীপনা এই খেলাকে ঘিরে থাকলেও জাতীয় দলের ক্যাপ্টেন কে শেষ পর্যন্ত পাথর ভাঙতে হচ্ছে। এটা সত্যিই মর্মান্তিক দৃশ্য।

প্রাক্তন অধিনায়ক ধামি নিজেই ব্যক্ত করলেন, একটি টুর্নামেন্ট সংগঠিত করার পরিকল্পনা হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এই ভয়ঙ্কর মহামারীর কবলে পড়ে সেই খেলার কার্যক্রম বাতিল হয়ে গেছে। সে কারণে তাকে আর্থিক অনটনের মধ্য দিয়ে জীবন চালিয়ে যেতে হচ্ছে।

এরইমধ্যে তিনি ভারত সরকারের কাছে নিজের ক্ষমতা অনুযায়ী কাজ চেয়ে আবেদন জানিয়েছেন। সরকার নিজেও তাকে বলেছেন, এই ব্যাপারটি আমাদের চিন্তা ভাবনার মধ্যে রইল। খুব দ্রুত এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আর ওনার খুব শীঘ্রই জীবিকা অর্জনের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। এখন সরকারের মুখাপেক্ষী হয়ে রয়েছেন ভারতের হুইল চেয়ার ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ক্যাপ্টেন রাজেন্দ্র সিং ধামি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.