অবশেষে খোঁজ মিললো বেলঘড়িয়ার নিট পরীক্ষার্থীর

গত মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ হওয়া নিট পরীক্ষার্থী অবশেষে বাড়ি ফিরেছেন (Finally the NEET candidate from Belgharia is found)। মঙ্গলবার দিন সকাল বেলা কুড়ি বছরের ওই পরীক্ষার্থী স্কুটার নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। তারপর থেকে তার কোনো খোঁজ না মেলায় তার পরিবারের তরফ থেকে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল।

গতকাল বাড়ি থেকে ১৭০ কিলোমিটার দূরে মুর্শিদাবাদের বেলডাঙায় কিশোরের স্কুটার এবং হেলমেট উদ্ধার হয়। পরিবারের তরফে অপহরণের আশঙ্কা করা হয়েছিল। বড় বাজারের ব্যবসায়ীর পুত্র রক্ষিত মিত্তাল বেলঘড়িয়ার এক অভিজাত আবাসনে সপরিবারে বাস করেন (Rakshit Mittal from Bara Bazar, Belgharia)। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর নিট পরীক্ষায় বসার কথা যুবকের।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে ১০ দিন আগে যুবককে ওই স্কুটার কিনে দিয়েছেন তার বাবা। মঙ্গলবার সকাল দশটা নাগাদ স্কুটার নিয়ে বরানগরের আলমবাজারের কাছে একটি মন্দিরে গিয়েছিলেন ওই যুবক। সাড়ে এগারোটায় তিনি মন্দির থেকে বেরিয়ে ছিলেন। সেই ঘটনা ধরা পড়েছে মন্দিরের সিসিটিভিতে। তারপর থেকে নিখোঁজ হয়ে যান যুবক। বেলঘড়িয়া থানায় অভিযোগ করা হয়েছিল পরিবারের তরফে।

মঙ্গলবার পর্যন্ত পরীক্ষার্থীর খোঁজ পাওয়া যায়নি। দত্তপুকুর এর মিরহাটির কাছে যুবকের মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন পাওয়া গেছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। এরপর যুবকের খোঁজে পুলিশ আধিকারিকদের একটি টিম মুর্শিদাবাদের বেলডাঙ্গায় পৌঁছয়। তবে হঠাৎই বুধবার ভোরবেলা যুবক বাড়িতে ফিরে আসেন। পরিবারের তরফে জানা গিয়েছে মুর্শিদাবাদ থেকে বাসে ফিরেছেন ওই যুবক। মুর্শিদাবাদ থেকে বাসে করে তিনি এয়ারপোর্টে এসে পৌঁছান। তারপর তিনি তার মাকে ফোন করেন এবং পরিবারের তরফে সেখানে পৌঁছে যুবককে বাড়িতে ফিরিয়ে আনা হয়।

পুলিশ আধিকারিক‌দের তরফে খতিয়ে দেখা হচ্ছে, তিনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে না পারার ভয়ে বাড়ি থেকে চলে গিয়েছিলেন কিনা। কারন এর আগে ২০১৮ এবং ২০১৯ এ মেডিকেল পরীক্ষা দিয়েছিলেন কিন্তু উত্তীর্ণ হতে পারেনি। সেই কারনেই তিনি অবসাদগ্রস্ত হয়ে এই কান্ড ঘটিয়েছেন কিনা, সে বিষয়ে তদন্ত করা হবে।