১৪ পর পুরুষের সঙ্গে পরকীয়া করছে বউ, ক্ষতিপূরণ চাইলো স্বামী

এই পৃথিবী একটা রঙ্গমঞ্চ। এখানে ক্রমাগত বিভিন্ন ধরনের নাটক হয়ে চলেছে। আর আমরাও প্রত্যেকেই এই নাটকের এক একজন প্লেয়ার। আবার কখনো আমরা একজন দর্শক। এরকমই একটা নাটকীয় ব্যাপার হয়ে গেল কলকাতার একটি স্থলে।

জায়গাটির নাম বিশেষ কারণে গোপন রাখা হচ্ছে। তবে এটি পশ্চিমবঙ্গেরই একটি জায়গাতে হয়েছে। আর এটি সত্যিই একটি নতুন ধরনের ঘটনা। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় এক স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে পরকীয়া (Adultery) ব্যাপারটা নিয়ে গণ্ডগোলের সূত্রপাত ঘটেছে।

ঘটনাটি হল ওই স্বামীর বউ পরকীয়া করতেন। আর এই ব্যাপারটি স্বামী, তাদের বৈবাহিক সম্পর্ক হওয়ার পূর্বে থেকেই জেনে গিয়েছিলেন। তিনি জানতেন যে, তার স্ত্রী অনেকগুলো পর পুরুষের সাথে সম্পর্ক চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তিনি মুখ বুজে ছিলেন এতদিন। কারণ তিনি চাইছিলেন না তাদের বিচ্ছেদ হোক। তুমি বিয়ে ভাঙতে রাজি ছিলেন না।

তো বর্তমানে ফিরে আসি। তার বউ কখন কি করে বেড়াচ্ছে তা জানার জন্য তিনি এ পদ্ধতি অবলম্বন করেন। তিনি তার নিজের ড্রাইভারকে এক্ষেত্রে সমস্ত ব্যাপার গুলো নজর রাখতে বলেন।

তো ড্রাইভার তার মালিকের বউয়ের সমস্ত কীর্তিকলাপ অবশেষে ধরতে পারে। সে স্পষ্ট দেখতে পাই যে ১৪ জন ভিন্ন ভিন্ন যুবকের সাথে পরকীয়াতে মত্ত তার মালিকের বউ। আর সঙ্গে সঙ্গে সে এই কথাটি তার মালিককে জানিয়ে দেয়।
আর এই ঘটনাটি জানার পরপরই তার বউয়ের ১৪ জন নাগরের (WIfe has 14 boyfriends) বিরুদ্ধে মানহানির কেস ঠুকে দেন।

তিনি এই ১৪ জন পুরুষের বিরুদ্ধে আদালতে গিয়ে মামলা করে দেন। তিনি তাদের বিরুদ্ধে প্রায় কয়েকশো কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি করেন (He demands compensation)। দুই সপ্তাহ অর্থাৎ ১৪ দিনের মধ্যে তার বউয়ের ১৪ জন বয়ফ্রেন্ডকে আইনি নোটিশ দিয়েছেন। তবে তার দাবি এখনো পূরণ হয়নি বলে তিনি বলেন। তাই নাকি এখনও ক্ষতিপূরণ হিসেবে কোন টাকা পাননি।