সৌরভ গাঙ্গুলির বিরুদ্ধে করা হতে পারে দেশদ্রোহের মামলা

লাদাখ সীমান্তে ভারত ও চীনের মধ্যে ক্রমাগত সংঘর্ষ লেগেই চলেছে। আর এই ঘটনার পরেই ভারতীয়রা সমস্ত ধরনের চীন দেশীয় দ্রব্য বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় চীনা দ্রব্য বর্জনের কর্মকাণ্ড শুরু করা হয়। এরইমধ্যে প্রশ্ন উঠেছিল ক্রিকেটের জনপ্রিয় লীগ আইপিএলের স্পনসর্শিপ ভিভো সঙ্গে চুক্তি বাতিল করার।

এব্যাপারে বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুন ধামাল স্টেটমেন্ট দিয়েছেন। তিনি বলেছেন যে, বিসিসিআই একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশকে সব সময় প্রাধান্য দেয়। কিন্তু স্পন্সর এর ক্ষেত্রে সমস্ত টাকায় আইপিএলের হিসেবে ভারতের কোষাগারে প্রবেশ করে।

এ ব্যাপারে মানবাধিকার পার্টির জাতীয় সভাপতি এবং প্রাক্তন সাংসদ পাপ্পু যাদব ক্রিকেট বোর্ডের এই মনোভাব পদক্ষেপকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছেন। তিনি এ ব্যাপারে একটি টুইট করেন। তিনি বলেন বিসিসিআই অমিত শাহের পুরো দখলে। ভিভোর সাথে চুক্তি বাতিল যদি না করা হয় তাহলে জয় শাহ, অরুন ধুমাল, সৌরভ গাঙ্গুলির বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করতে বাধ্য হব।

তিনি আরো বলেন, বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ বলেছিলেন যে চীনের এই সংস্থাটি নাকি ভারতের উপকার করবে। কিন্তু আইপিএলে তার সঙ্গে চুক্তি ভঙ্গ করতে চায় না। অর্থ প্রতিমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ দয়া করে একই গল্প বারবার দেবেন না। দেশের বিশ্বাসঘাতকদের গুলি করে মেরে ফেলুন…

সুতরাং স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে চুক্তির সময় শেষ হওয়া পর্যন্ত ভিভো আইপিএল এর টাইটেল স্পন্সর হিসেবে বিদ্যমান থাকছে। এই কথাটি ক্লিয়ার করে বলে দেন বিসিসিআই কোষাধ্যক্ষ। তবে তিনি একথাও স্বীকার করেছেন যে, পরবর্তীকালে কোন প্রকার চিনা কোম্পানিকে স্পন্সরশিপ দেওয়া হবে না। বিসিসিআই ভিভো থেকে বছরে 440 কোটি টাকা আয় করে থাকে। আর এই যুক্তিটি শেষ হবে 2022 সাল নাগাদ।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.