প্রধানমন্ত্রীর পাশে ছবি, আবাস যোজনার ভুয়ো বিজ্ঞাপন দেখে অবাক বউবাজারের লক্ষীদেবী

রবিবার দিনই একটি ইস্তাহার প্রকাশ পেয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির তরফ থেকে এবং তাতে রয়েছে প্রতিশ্রুতি অনেক। এই রকম একটি বিজ্ঞাপনে মোদিজীর পাশে প্রকাশ পেয়েছে বউবাজারের এক বাসিন্দা লক্ষ্মী দেবীর ছবি। এই সম্পূর্ণ ছবিটি প্রকাশ পেয়েছিল একটি পেপারে ওই ছবিকে কেন্দ্র করে একটি বিজ্ঞাপন করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে যে, প্রধানমন্ত্রী একটি যোজনা করেছেন আবাস যোজনা, এবং সেখানে এই মহিলা বাড়ি পেয়েছে। ব্যাপারটি যখন লক্ষ্মী দেবীর চোখে পড়ে তখন তিনি তা দেখেই অবাক হয়ে যান। এই সম্পর্কে যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় তিনি সম্পূর্ণ হতবাক। (Laxmi Devi photo from Bou Bazar, Kolkata is wrongly added with Pradhan Mantri Awas Yojna ad)

ছবিটি প্রকাশ পেয়েছিল ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, সমস্ত খবরের কাগজে। খবরের কাগজে তুলে ধরা হয় যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় মানুষ অনেক উপকৃত হয়েছে এবং যার জন্য এই বিজ্ঞাপনটি দেওয়া হয়। এই বিজ্ঞাপনটিতে ছিল প্রধানমন্ত্রীর ছবি এবং প্রধানমন্ত্রীর পাশেই ছিল লক্ষ্মী দেবীর ছবি এবং সেখানে লেখা ছিল যে ইনি আবাস যোজনার মাধ্যমে নতুন বাড়ি পেয়ে ভীষণ খুশি। (Pradhan Mantri Narendra Modir sathe chobi, Abas Yojonar bhuyo ad dekhe hotobak BouBazaar er Laxmi Devi)

এই বিষয়টি যখন তদন্ত করা হয় তখন আসল সত্যিটা সামনে চলে আসে। বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় লক্ষীদেবী নতুন বাড়ি পেয়েছেন এবং যার জন্য তিনি ভীষণ খুশি, কিন্তু আসল ঘটনাটি হল তিনি কোন বাড়ি পাননি কারণ তিনি এখনো পর্যন্ত একটি বাড়িতে ভাড়া থাকেন। খবরের একটি চ্যানেলের আজকের টিমকে পাঠানো হয়েছিল লক্ষ্মী দেবীর বাড়িতে এবং সেখানে সমস্ত ঘটনা সম্পর্কে জানা যায়।

তিনি ওখানে ভাড়া দিয়ে একটি বাড়িতে থাকেন। ভাড়া থাকার জন্য তাকে ৫০০ টাকা দিতে হয়। ওই বিজ্ঞাপন অনুযায়ী তিনি কোন বাড়ি পাননি এমনকি এই সমস্ত বিষয়ে লক্ষী দেবীর কাছে কোনো তথ্য নেই। এই ছবিটি সম্পর্কে লক্ষীদেবী জানান যে, এই ছবিটি বাবুঘাটে তোলা হয়েছে কারণ তিনি সেখানে কাজ করেন।

laxmi devi photo from bou bazar is wrongly added with pradhan mantri awas yojna ad
প্রধানমন্ত্রীর পাশে ছবি, আবাস যোজনার ভুয়ো বিজ্ঞাপন দেখে অবাক বউবাজারের লক্ষীদেবী