” যতক্ষণ আমি বেঁচে আছি ততক্ষণ বাংলায় কোনো রকম এনআরসি অথবা এনআরপি শুরু করতে দেবনা”, মমতা বন্দোপাধ্যায়

ক্ষমতায় আসার পর থেকে কেন্দ্রীয় সরকার ভারতজুড়েই এনআরসি এবং এনআরপি প্রয়োগ করার চেষ্টা শুরু করে দিয়েছে, এখন বাংলাতেও চলছে সেটাই করার, তবে এই চেষ্টা কিছুতেই সফল হতে দেবে না সেটাই বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরাসরি জানিয়ে দিলো মঙ্গলবার পশ্চিম বর্ধমানের একটি সরকারি অনুষ্ঠানে। (Mamata Banerjee strongly opposes the implementation chances of NRC NRP in West Bengal)

তিনি সেই অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে বলেন যে,” বিজেপি চাইছে এনআরসি এবং এনআরপি চালু করতে। নাগরিকত্ব পেতে হলে এবার ঠাকুরদার বার সার্টিফিকেট আনতে হবে। আমার জানা নেই আমার মা কবে জন্মেছে। কারণ আগে বাচ্চা সাধারণত বাড়িতেই হতো তাই জন্ম সার্টিফিকেট তৈরি করা হতো না”।

ওই অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর সরাসরি বলে দিলেন যে,” আমি বাংলাকে কখনোই গুজরাত হতে দিতে পারব না। গুজরাট এবং গান্ধীর জন্য আমার যথেষ্ট সম্মান রয়েছে, কিন্তু তাই বলে আমি আমার বাংলাতে কখনোই অন্য কিছু বানিয়ে ফেলতে পারবো না। এর জন্য আমি যতদিন বেঁচে থাকবো ততদিন পর্যন্ত লড়াই করে যাবো”।

তিনি আরো বলেন যে,” বিজেপি চাই ইসিএল কে বেসরকারি করে দিতে, কিন্তু যদি এটি বেসরকারি হয়ে যায় তাহলে বিশাল সংখ্যক শ্রমিক রয়েছে তারা কোথায় যাবেন? কেন্দ্রীয় সরকারের এরপর রেলও বিক্রি করে দেবে”।

মুখ্যমন্ত্রীর এই অভিযোগগুলোর জন্যই পড়ে বিজেপির সভাপতি রিতেশ তেওয়ারি মন্তব্য করে বলেন যে,” উনি আজকাল উল্টোপাল্টা কথা বলছেন, এবং মানুষদেরকে ভুল বুঝাচ্ছেন। বিজেপি নেতাদের মধ্যে যারা উচ্চ স্তরে রয়েছে তারা এখনো পর্যন্ত কোনো রকম এনপিআর অথবা এনআরসির কথা বলেননি”।

তিনি আরো বলেন যে, “রাজ্যের মধ্যে আমরা প্রায় ৪০ শতাংশ ভোট পেতে চলেছি এবং যেটা দেখে ওনার অনেক ভয় লেগে গেছে”।

Mamata Banerjee strongly opposes the implementation chances of NRC NRP in West Bengal
” যতক্ষণ আমি বেঁচে আছি ততক্ষণ বাংলায় কোনো রকম এনআরসি অথবা এনআরপি শুরু করতে দেবনা”, মমতা বন্দোপাধ্যায় (Facebook Photo)