করোনার আগ্রাসী থাবার সময়ে শুরু পবিত্র রমজান! মুখ্যমন্ত্রীর গুরুত্বপূর্ণ বার্তা শুনুন

আজকে থেকেই শুরু হচ্ছে পবিত্র রমজান মাস। আর এই কারণে সারা বিশ্বের সমস্ত মুসলিম সম্প্রদায় একসাথে পুরো মাস জুড়ে রোজা রাখে। তারপর ইফতার গ্রহণের মধ্য দিয়েই শেষ হয়। এই রোজা আলাদা আলাদা দেশে আলাদা আলাদা রকমের রমজান সংস্কৃতিতে এক উৎসবের আবহাওয়া বিরাজ করে। মসজিদে একসাথে নামাজ পড়তে দেখা যায় কিন্তু এবারের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। কারণ করোনা ভাইরাসের আগ্রাসী থাবায় দেশব্যাপী জুড়ে চলছে লকডাউন। তাই সঙ্গত কারণেই যেকোনো ধরনের বড় জমায়েত, কোনরকম অনুষ্ঠান বা ধর্মসভা সমস্ত কিছু উপরেই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

তাই সঙ্গত কারণেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিনের শুরুতেই রমজান মাসের শুভেচ্ছা জানিয়ে সকলের উদ্দেশ্যে শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার অঙ্গীকার জানিয়েছেন। পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতিতে মন্দিরে প্রার্থনা করার জন্য, মসজিদে নামাজ পড়ার জন্য যাতে কেউ সমবেত হয় সে কথাও বারবার স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন।

যাদবপুর এবং প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের লোকজনের উদ্দেশ্যে লাউড স্পিকারের মাধ্যমে এই আবেদন জানান যে কোন ভাইরাসের সঙ্গে কঠিন যুদ্ধে জয়লাভ না করা পর্যন্ত আমাদের ঘরেই আমাদের মসজিদ -মন্দিরের কাজকর্ম সম্পাদন করি। আর এখানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে একটানা লকডাউনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বেশ। কিছুদিন আগেই ছিল বাঙ্গালীদের নতুন বছর আবার আজকে থেকে শুরু পবিত্র রমজান। কিন্তু এখন প্রত্যেকটা উৎসব-ই রঙহীন। এই ধরনের উৎসব হয়তো আগে কখনো কেউ দেখেননি। এই বিষয়টি যথেষ্ট দুঃখজনক। কিন্তু সমবেদনা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন পরিস্থিতি আমাদেরকে এমন করে দিয়েছে যে বাধ্য হয়ে ঘরে কাটাতে হবেই। সবার আগে স্বাস্থ্যসুরক্ষা তাই এই লকডাউন যত সুচারুরূপে আমরা পালন করব ততো তাড়াতাড়ি পুরোনো দিনে ফিরে আসতে পারবো।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা পড়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.