মণীশ শুক্লাকে এলোপাথাড়ি গুলি করে খুন ! বিজেপির ব্যারাকপুর বন্ধের ডাক

বিজেপির এক দাপুটে নেতা হলেন মণীশ শুক্লা। ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং এর অত্যন্ত কাছের লোক এই মণীশ বাবুকে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে খুন করল দুষ্কৃতীগণ (BJP MLA Arjun Singh’s close one Manish Shukla is shot dead at random BJP calls for Barrackpore bandh)। সূত্র থেকে জানা গেল, রবিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তিনি বিজেপির কার্যালয়ে ঢুকতে যাচ্ছিলেন। আর ঠিক সেই সময় তিন-চারজন বাইক আরোহী তার চারপাশে ঘিরে ফেলে। আর গুলি ছুঁড়তে আরম্ভ করে। স্বাভাবিকভাবেই ধীরে ধীরে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এই দাপুটে নেতা। ঠিক টিটাগর থানার সামনে ঘটেছে এই ঘটনাটি। আর গুলি ছোড়া অবস্থাতেই দুষ্কৃতীগণ ওই এলাকা থেকে পলায়ন করে।

গুলি লেগে গুরুতরভাবে জখম হওয়া এই নেতাকে ওই এলাকার একটি বেসরকারি হসপিটালে এডমিশন করানো হয়। কিন্তু অবস্থার ক্রমাগত অবনতি হওয়ার দরুন তাকে কলকাতার বাইপাসের ধারে অন্য আর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ট্রান্সফার করা হয়। তবে দুর্ভাগ্যবশত সেখানকার ডাক্তারগণ তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

bjp councillor manish shukla
বিজেপি কাউন্সিলর মণীশ শুক্লা (ফটো ক্রেডিটঃ ফেইসবুক)

এই মুহূর্তে মণীশ বাবুর খুনের ঘটনা নিয়ে গোটা পশ্চিমবঙ্গে তোলপাড় শুরু হয়ে গিয়েছে। বিজেপি দলের পক্ষ থেকে এই খুনের দায় সরাসরি তৃণমূল নেতৃত্বের ওপর চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। অধিকন্তু তারা পুলিশের কর্তৃপক্ষদেরকেও দায়ী করেছেন। তাছাড়া, আজ সোমবার এ বিজেপি দলের তরফ থেকে ব্যারাকপুর বন্ধের ডাক দেওয়া হয়েছে।

এই খুনের তদন্ত করার জন্য রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী এবং রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্রকে জরুরি তলব করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। তিনি এই ব্যাপারে একটি ট্যুইট বার্তা করেছেন। তিনি সেখানে লিখেছেন,”এটা প্রকৃতপক্ষে টিটাগরে আইন-শৃংখলা ভঙ্গ হয়ে যাওয়ায় এই খুনের ঘটনা ঘটেছে। বিজেপি দলের অফিসে টিটাগর পৌরসভার কাউন্সিলর মণীশ শুক্লাকে কাপুরুষের মতো খুন করার ঘটনা তে সোমবার সকাল দশটায় স্বরাষ্ট্র সচিব ও পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ডিজি কে তলব করা হলো।”

অপরদিকে বিজেপি দলের পক্ষ থেকে এই খুনের দায় সরাসরি চাপিয়ে দেওয়া হল তৃণমূলের ওপর। অপরদিকে পুলিশ এর কার্যক্রম নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তবে টিএমসি তরফ থেকে পাল্টা বলা হয়েছে যে, দলের ভেতরে গন্ডগোলেই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন মণীশ।
এই ব্যাপারে ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখলেন। তিনি জানালেন,”মনিশ আমার ছোট ভাইয়ের মতো। তাকে যেভাবে হত্যা করা হলো এর মাশুল গুনতে হবে তৃণমূল এবং পুলিশকে।”