মহামারীতে বন্ধ হয়ে গেলো মিত্র বাড়ির ভোগ

করোনার ফলে সমাজে যে ভয়াবহ মন্দার সৃষ্টি হয়েছে তার ফলে বাঙালির সর্বকালের শ্রেষ্ঠ পুজো দুর্গাপূজাতেও রাস টেনেছে। দুর্গাপূজা যেটা বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব, কলকাতা জুড়ে যার এত রমরমা , বিভিন্ন বনেদি বাড়িতে আদিকাল থেকে চলে আসা ঐতিহ্যপূর্ণ যেসকল পুজা হত সেই সকল পুজোতেও বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনা (Bonedi Durga Puja 2020 in Kolkata) ।

বিশেষ করে বনেদি বাড়িতে যে সকল পূজা হয় সেই সমস্ত পূজা অত্যন্ত রীতি এবং নিয়ম মেনে চলে আসছে আজ পর্যন্ত। সেখানে আর্থিক অবনতির কারণে তাদেরও দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে।

এমতাবস্থায় জানা গেলো মিত্র বাড়ির পুজোতে মায়ের ভোগ-প্রসাদ দেওয়া সম্পূর্ণরূপে বন্ধ এই বছর। অনেকেই জানেন মিত্র বাড়ির বনেদি পুজোর সম্পর্কে (North Kolkata Mitra bari durga puja bhog stops in 2020 due to corona crisis)।

bonedi barir Durga Puja 2020
বনেদি বাড়ির দূর্গা পুজা (ফটো ক্রেডিটঃ ইউটিউব)

মিত্র বাড়ির পুজো কথাটা শুনলেই এক ঐতিহ্যপূর্ণ পুজোর দৃশ্য চোখের সামনে ভেসে ওঠে। পলাশীর যুদ্ধের ৫ বছর পর থেকে শুরু হয়েছিল মিত্র বাড়ির পুজো। বাড়ির সদস্যদের মতে প্রায় ২০০ বছরের ওপরেও কোনোদিন এরকম দুর্দিন আসেনি যে পুজোয় মায়ের ভোগ দেওয়া সম্ভব হয়ে ওঠেনি। বাড়ির কর্তারা বলেন পুজোটা অবশেষে হচ্ছে কিন্তু অনেক রীতি আমাদের এই বছর মানা হবে না। মিত্র বাড়ির পুজো যেখানে পুজোর সময় বাড়ির সদস্যই প্রায় ১০০ থেকে ১৫০ জন জমায়েত হত তারা কেউই এ বছর পুজোয় আসতে পারবে বলে মনে হচ্ছে না।

সদস্যরা উপস্থিত না থাকলে বাড়ির প্রতিমা বিসর্জন করাও চাপের ব্যাপার হয়ে ওঠে তাই সেই কথা ভেবে বাড়ির প্রতিমার উচ্চতা ১০ ফুট থেকে নামিয়ে ৬ ফুটে আনা হয়েছে। তার সাথে বন্ধ এবছর প্রতিমাকে কোনরূপ ভোগ-প্রসাদ দেওয়া। দুর্গা পুজো মানেই বিশাল লোকের জমায়েত, কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে এ বছর তা সম্ভব হবে না তাই যথাপোযুক্ত নিয়ম মেনেই এবং ছোট করে পুজো করা হবে বলে জানিয়েছেন মিত্র বাড়ির সদস্যরা। এমনকি আড়ম্বরপূর্ণ যে সিঁদুর খেলা হতো সেটিও এবছর সম্ভব হবে না। বাড়ির মহিলারাই দূরত্ব বজায় রেখে একে একে প্রতিমাকে সিঁদুর মাখবেন বলে জানা গেছে।