TET Corruption : “কেবলমাত্র তৃণমূল কর্মীরা TET-এ চাকরি পেয়েছেন”- বিস্ফোরক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু

West Bengal Election 2021 : বিশ্বজিৎ কুন্ডু, কিছু সময় আগেই দল ত্যাগ করে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। এইবার টেট নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিশ্বজিৎ কুণ্ডু। তার বক্তব্যে বলা কিছু মন্তব্য তৃণমূল গোষ্ঠীর মধ্যে বিশেষ শোরগোল ফেলে দিল। (West Bengal TET exam Corruption News : MLA Biswajit Kundu reveals West Bengal TET exam corruption)

তিনি তার মন্তব্যে জানালেন ২০১৪ সালে যে টেট নিয়োগ হয়েছিল সেটি সম্পূর্ণরূপে দুর্নীতি ছিল। তিনি তার বক্তব্যে এও বলেন যে- “এটা ঠিক কথা যে আমার বৌদি এবং আমার স্ত্রী চাকরি পেয়েছেন কিন্তু আমি ৬২ জনকে চাকরি দিয়েছে যাদের মধ্যে সকলেই তৃণমূল দলের কর্মী। এছাড়া শুধু আমি নয় পাশাপাশি আরো বিশিষ্ট নেতা যেমন অনুব্রত মণ্ডল, তপন চট্টোপাধ্যায়, স্বপন দেবনাথ এরাও চাকরি দিয়েছেন অসংখ্য। 2014 সালের টেট এর এই নিয়োগে চাকরি পেয়েছেন শুধুমাত্র দলের কর্মীরা এবং তাদের ঘনিষ্ঠরা। অতএব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই এই দুর্নীতি করেছেন।” (Durniti kore bou o boudi ke chakri dilen Biswajit babu)

তার এই বিস্ফোরক বক্তব্যের ফলে তৃণমূলের অন্দরমহল সমালোচনায় ভরে গেছে। অনেকেই যথেষ্ট ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তার এই বক্তব্যকে ঘিরে।

বিশ্বজিৎ কুণ্ডুর এই বক্তব্যের প্রতি তরে অনুব্রত মণ্ডল জানিয়েছেন- “দুর্নীতিগ্রস্ত যদি কেউ হয়ে থাকে সেটি হলো বিশ্বজিৎ কুণ্ডু। ও একটা চোর, ও নিজের পুরো গুষ্টি কে চাকরি দিয়েছে।” যদিও স্বপন দেবনাথ এ বিষয়ে কোন রকম মন্তব্য করেননি। এমনকি শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর প্রশ্নের সম্মুখীন হননি।

বিশেষ সূত্র থেকে জানা গেছে ২০১৪ সালের টেট প্রাথমিকে বিশ্বজিৎ কুণ্ডুর পরিবারের ১৩ জন নাকি চাকরি পেয়েছেন। পাশাপাশি কিছু জন তাকে “ট্রেটশ্রী” পুরস্কার দেয়া উচিত বলে কটাক্ষ করেছেন। তাকে এইরূপ কটাক্ষ করার কারণ হলো কালনায় টেট কেলেঙ্কারির নায়ক হিসেবে বিশেষ পরিচিতি তার। এমনিতেও নিজস্ব দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করার জন্য তৃণমূল দলের অন্দরমহলে একটি চাপা ক্ষোভ দেখা দেয় এবং অবশেষে সেটি বিস্ফোরক অকারণে তার এইরূপ বক্তব্যের কারণে। (Some slams to give him ‘Tetashree’ puroskar. Some claims – Kalna TET corruption hero MLA Biswajit Kundu. tet kelengkari)