সল্টলেকের কঙ্কাল জনিত কান্ডের তদন্তে এক বিস্ফোরক তথ্য

কিছুদিন আগেই সল্টলেকের একটি আবাসনে কঙ্কাল পাওয়া যায়, এরপরে তদন্ত করতে উঠে আসে নানা রকম চাঞ্চল্যকর তথ্য। কালটি ছিল একটি ২৫ বছরের যুবকের। সেই যুবকের আরো দুই ভাইবোন আছে। খবর সূত্রে জানা গেছে যে,মৃত যুবক, তার বাবা এবং দুই ভাই-বোনের সাথেই থাকতো সেই বাড়িতে, কিন্তু মার সাথে বাবার বিবাদের জন্য, বাবা থাকতো অন্য একটি আবাসনে। (New information found on skeleton case in Salt Lake)

সেই মৃত যুবকের মা এবং দুই ভাই বোন থাকত ওই সল্টলেকের আবাসনে। কিন্তু কিছুদিন পরেই মৃত যুবকের বাবার সন্দেহ হওয়ার জন্য থানায় ডায়েরি করে, বড় ছেলে নিখোঁজ হওয়ার জন্য। এরপরে মৃত যুবকের খোঁজ এর তদন্তে নেমে সল্টলেকের আবাসন থেকে উদ্ধার করে এক কঙ্কাল।

এরপরে সমস্ত বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করা হয়। তদন্ত করতে গিয়ে সেই সল্টলেকের আবাসন থেকে পায় কিছু জিনিস যা সকলকে অবাক করে দিয়েছে। সল্টলেকের আবাসনের থেকে পাওয়া যায় কাঠের টুকরো, কপূর,ঘি, ইত্যাদি। এছাড়া কিছু জায়গায় পাওয়া যায় রক্তের দাগ। একটি লোহার টুলের গায়ে, এবং মেঝেতে রক্তের দাগ পাওয়া যায়।

এই সমস্ত জিনিস গুলি পাওয়ার পরে মনে করা হচ্ছে যে, এই বাড়িটিতে কোনরকম তন্ত্র সাধনা করা হতো। এই তন্ত্রসাধনার জন্যই সেই ২৫ বছরের যুবককে খুন করা হয়েছে। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা এই ব্যাপারে তদন্ত করার পরে প্রাথমিক ভাবে মনে করছেন যে, হয়ত খুন করার পর সেই মৃতদেহটিকে নানা রকম কপূর এবং কাঠ দিয়ে পোড়ানো হয়েছিলো।

বাড়িটির পিছনের দিকে একটি হল ঘর ছিল,ওই ঘরেই পাওয়া গেছে এই সব জিনিস। ওই ঘরটিতে অনেক রকম ছবি পাওয়া যায়,যা দেখে ফরেনসিক রিপোর্টাররা মনে করছেন এই সমস্ত ঘটনাই তন্ত্রসাধনার জন্যই হয়েছে।

এলাকার বেশ কয়েকজনের সঙ্গে যখন সংবাদমাধ্যম কথা বলে তখন তারা জানায় যে মাঝে মাঝে ওই বাড়ি থেকে নানারকম পুজো এবং যজ্ঞ হত, কিন্তু কেউই বাড়ি থেকে বের হতো না। আপাতত মৃত যুবকের মাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং আদালতে পেশ করা হবে বলে জানা গেছে। অপেক্ষা করা হচ্ছে ফরেনসিক টেস্ট রিপোর্ট আসার। (konkal kando Salt Lake, Kolkata, West Bengal)

New information found on skeleton case in Salt Lake
সল্টলেকের কঙ্কাল জনিত কান্ডের তদন্তে এক বিস্ফোরক তথ্য