মানুষের কাঁচা মাংস পাচার করার অভিযোগে মুম্বাই থেকে গ্রেফতার মহিলা (৩০)

ভাগাড়ের মাংসের কথা চারিদিকে জানাজানি হয়ে যাবার পর এককথায় রেস্টুরেন্টের মালিকদের মাথায় হাত পড়ে গিয়েছিল। আমরা যারা সাধারন মানুষ তারা বহুদিন রেস্টুরেন্ট লোক হতে পারিনি। আরো একবার সেই রকমই একটি ভয়ঙ্কর ঘটনার ঘটনা ঘটে গেল খোদ স্বপ্নের নগরী মুম্বাইতে। মহারাষ্ট্রের থানে এলাকা থেকে পুলিশের জালে ধরা পড়ে মধ্য বয়স্কা একজন মহিলা। তার কাছ থেকে বন্দি করে রাখা তিন জনকে উদ্ধার করতে পেরেছে পুলিশ। বন্দীদের মধ্যে একজন কিশোরী বলে জানা গেছে। (Mumbai Crime News: Nisha aka Amarjit Jaswant Singh Kaur is arrested for flesh tradng in mumbai)

পুলিশ সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে যে, সম্প্রতি গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এই বিশাল পাচার চক্রের হদিশ পেয়ে যায় পুলিশ। এরপর ওয়ান্ডার ভাসাই ভিরার পুলিশ মুম্বাই এবং আমেদাবাদ রোডের পাশে একটি রেস্তোরাঁয় হঠাৎ করেই রাতে হানা দেয়। সেখান থেকেই তারা জানতে পারে এই মহিলার কথা।

রেস্তোরাঁয় হানা দিয়ে সেখান থেকে উদ্ধার করে তিন জনকে। তার মধ্যে একজন মহিলা এবং একজন কিশোরী। অভিযুক্ত মহিলার নাম নিশা ওরফে অমরজিৎ যশোবন্ত কাউর। পাচার চক্রের সঙ্গে আটক তিনজনের কোন যোগাযোগ আছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। (Nisha aka Amarjit Jaswant Singh Kaur)

একইসঙ্গে রাজধানী দিল্লি থেকে ৪৫ জন নাবালককে উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ সূত্র থেকে জানা গেছে, গতবছর বিহার থেকেই এনে এখানে বন্দি করে রাখা হয়েছিল। প্রত্যেকের বয়স ১৫ বছরের মধ্যে। পুলিশ হানা দেবে শুনতে পেয়ে কিছু নাবালককে শৌচালয় তে আটক করে রাখে কারখানা কর্তৃপক্ষ। বাকিদের উদ্ধার করার পর পুলিশ দিয়ে শৌচালয় বন্দি হয়ে থাকা নাবালকদের উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

আপাতত ঘটনার তদন্তে নেমে পড়েছে পুলিশ। এই ঘটনায় জড়িত থাকা আরও কিছু মানুষকে গ্রেফতার করতে পারলে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা যাবে বলে মনে করছে পুলিশ।

nisha aka amarjit jaswant singh is arrested for flesh tradng in mumbai
মানুষের কাঁচা মাংস পাচার করার অভিযোগে মুম্বাই থেকে গ্রেফতার মহিলা (৩০)