মহানগরীতে বাংলা বলার অপরাধে অবাঙালিদের হাতে হেনস্তা হলেন এক বাঙালি

Kolkata : বাংলা ভাষায় কথা বলার জন্য কলকাতায় এক বাঙালি কে হেনস্তা করা হলো। মানে এটা কি? বাংলায় থাকা মানুষ বাংলা কথা বলেছে বলে তার অপরাধ? এবং যার জন্য তাকে রীতিমত হেনস্তা করা হলো ভাবলে পড়ে গা শিউরে ওঠে, তাহলে একবার ভাবুনতো যে এই হেনস্তার শিকার হয়েছে তার ঠিক কতটা অবাক হওয়ার বিষয়। যাইহোক এই ঘটনাটি ঘিরে যথেষ্টভাবে একটা অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে গেছে, এমনই অস্বাভাবিক যে সেই সম্পূর্ণ বিষয়টি থানা-পুলিশ পর্যন্ত চলে গেছে। (Non-Bengalis harass a Bengali for speaking in Bengali in Kolkata, West Bengal)

বাংলায় থাকছে অথচ বাংলায় যদি কেউ কথা বলে তাহলে সেটা অপরাধ এ আবার কেমন কথা। বাংলায় কথা বলার জন্য হেনস্থা হতে হলে একজন বাঙালি ব্যবসায়ীকে। বড়বাজারের এই ঘটনা রীতিমতো অস্বাভাবিক একটি পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। মাত্র কয়েকটা দিন তারপর এই বিধানসভা ভোট শুরু হয়ে যাবে তার আগেই ভাষা সংক্রান্ত বিষয়ে এই ধরনের একটি ঘটনার পিছনে অনেকেই মনে করছেন যে রাজনৈতিক ব্যাপার রয়েছে। এই ব্যাপারটির প্রতিবাদে মিছিল বার করা হয়েছে পুলিশের কাছে অজস্র অভিযোগ জমা পড়েছে। (Mahanaori te Banglay kotha bolar jonno ek Bangalike henostha hote holo obangalider haate)

ঘটনাটি কি ঘটেছিল? যার জন্য হেনস্থা হতে হলো ওই ব্যবসায়ীকে। খবর সূত্রে জানা গেছে যে, রোহিত মজুমদার নামে এক ব্যবসায়ী যিনি যাদবপুরের বাসিন্দা তিনি ব্যবসার কাজের জন্য মনোহর দাস কাটড়ায় গিয়েছিলেন। তিনি বলেন যে, বেশ সন্ধ্যা সন্ধ্যা সময় ছিল রাস্তায় তিনি বেরিয়েছিলেন যে দোকানপাট খোলা আছে কিনা সেটা দেখতে। হাতে একটা সিগারেট ছিল একজন অবাঙালি তার কাছে জিজ্ঞাসা করেন যে তিনি কি খোঁজ করছেন তখন তিনি তার দরকারের কথাটি বলে। (Rohit Majumdar, Jadavpur, Kolkata)

তিনি ওই ব্যক্তিকে বলে ভিতরে আসতে। রোহিত সিগারেটটা নিয়ে ভেতরে জান এরপরে একজন অবাঙালি তাকে নানাভাবে বিচ্ছিরি রকম গালি দিতে থাকেন রোহিত কে ধূমপান করার অপরাধে । এরপর রোহিত জানায় যে সে ভেতরে ঢুকে কোনরকমে সিগারেটে টান দেয় নি এবং তিনি ইচ্ছা করে ওই ঘরে উনাকে আসতে বলা হয়েছিল ঘরে থাকা সেই অবাঙালি ব্যক্তি তার কোন কথাই শোনে না তাকে বিচ্ছিরি রকম গালি গালা দিতে থাকে।

রোহিত বাঙালি বলে তাকে অপমান করেন সেই অবাঙালি ব্যক্তি। এরপরই তাকে ওই বাড়িটির কর্তৃপক্ষের কাছে যখন নিয়ে যাওয়া হয় তাকে ৪৫ মিনিট হেনস্তার শিকার হতে হয় এবং ৫০০ টাকা জরিমানা দেওয়ার কথা রোহিত কে বলা হয়। ওই অবাঙালি ব্যক্তি গুলি সকলেই হিন্দি ভাষায় কথা বলছিল যার জন্য অনেক কিছুই বুঝতে পারিনি রোহিত।

অবাঙালি ব্যক্তিদের বলেছিল যে যেন বাংলায় তারা কথা বলে। এর পরেই ওই অবাঙালি ব্যক্তি গুলি আরো রেগে যান এবং রোহিতের কাছ থেকে ২০০ টাকা জরিমানা নেন। বাংলায় কথা বলার জন্য রোহিতকে বাংলাদেশি বলেছেন ওই অবাঙালি ব্যক্তিরা। এরপরে সমস্ত ঘটনাটি বড়বাজার থানায় গিয়ে সে জানায় এবং জরিমানার টাকা যাতে ফেরত দেয় ওই অবাঙালি ব্যক্তিরা তার ব্যবস্থা করেন পুলিশ। এই ব্যাপারটি নিয়ে মিছিল বের করা হয় বাংলার পক্ষ থেকে। (Bangla Pokkho Kolkata slogan)

non bengalis harass a bengali for speaking in bengali in kolkata
মহানগরীতে বাংলা বলার অপরাধে অবাঙালিদের হাতে হেনস্তা হলেন এক বাঙালি