মাত্র 103 টাকাতে করোনার ওষুধ !

অবশেষে খানিকটা আশার আলো দেখতে পাওয়া গেল। শনিবারে মুম্বাইয়ের গ্লেনমার্ক অ্যান্টি-ভাইরাল ড্রাগ ফ্যাভিপিরাভি ওষুধ উৎপাদন ও বিপণনে ভারত সরকার অনুমোদন করেছে। এই কারণে এই কোম্পানিটি ভারতের বড় ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থা হিসেবে নাম করতে পেরেছে।

আর এই ওষুধটি মূলত করোনার সম্ভাব্য যে সমস্ত ওষুধের কথা চিন্তা করা হচ্ছে তার মধ্যে অন্যতম। জানা গেছে শুক্রবারে ভারতের ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল এমার্জেন্সি হিসেবে করোনার সম্ভাব্য ওষুধ হিসেবে পারমিশন দিয়েছে গ্লেনমার্ককে। এই ব্যাপারে শনিবারে এক মিডিয়া কনফারেন্সে এই ওষুধটির ব্যাপারে সমস্ত জিজ্ঞাসা আর উত্তর দেন।

তারা বলেন এই ড্রাগটি যাদের স্বল্প থেকে মাঝারি আকারের করোনার সংক্রমণ হবে তাদের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে। সংস্থার মত অনুযায়ী, এটি সামনের সপ্তাহে মার্কেটে চলে আসবে। আর মাসের শেষের দিকে প্রেসক্রিপশন এর মাধ্যমে ওষুধের দোকান গুলিতেও থাকবে প্রতিটি ট্যাবলেটের দাম হবে মাত্র 103 টাকা।

আরো খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এটি মূলত জাপানের তৈরি। আর এরপর ইনফ্লুয়েঞ্জা রোগীদের চিকিৎসার জন্য এই ওষুধটি ব্যবহারের পারমিশন দেওয়া হয়েছিল। এটি করোনার ক্ষেত্রে মূলত পরীক্ষামূলক ভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এই ওষুধটি এর পাশাপাশি ইবোলা, এইচআইভি রোগের প্রতিরোধের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হয়।

এখন এই ওষুধটি ভারত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, চীন, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য এবং অন্যান্য আরো মোট 18 টি দেশে ক্লিনিকাল ট্রায়াল চলছে। সর্বপ্রথম চীনে 340 জন করোনা রোগীর ওপর এই অ্যান্টিভাইরাল ড্রাগটি দিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করা হয়। জানা গিয়েছে উহান এবং সেনজেনে করোনার উপর বেশ ভালো রেজাল্ট পাওয়া গেছে এই ওষুধটি ব্যবহার করে।

দ্য গার্ডিয়ানে 18 ই মার্চ এক প্রতিবেদনে চীনের স্বাস্থ্য আধিকারিক তার মতামত পোষণ করেছেন। তিনি বলেন, ফ্যাভিপিরাভি ব্যবহারে তিনি যে করোনা রোগীর চিকিৎসা করছিলেন তার 91 শতাংশ ক্ষেত্রে ফুসফুসের অবস্থার উন্নতি হয়েছে। অন্য ক্ষেত্রে মাত্র 62 শতাংশ উন্নতি দেখা গেছে।

আর জাপানের ক্ষেত্রে মাঝারি উপসর্গের প্রায় দুই হাজারের বেশি রোগীর উপর এই ওষুধটি প্রয়োগ করা হয়েছে। দেখা গেছে, এই ওষুধটি দেয়া রোগীদের মধ্যে সপ্তম দিন পর্যন্ত 74% এবং 14 তম দিন পর্যন্ত 88 শতাংশ ক্ষেত্রে অবস্থার দারুণ উন্নতি লক্ষ্য করা গেছে।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.