লকডাউন এ সমাজসেবা করছেন ভাইরাল গায়িকা রানু মন্ডল

কিছুদিন আগেই আমরা প্রত্যক্ষ করেছিলাম ট্রেন স্টেশন থেকে এক সম্পূর্ণ ভিন্ন দুনিয়ার স্বপ্ন জগতে পা রাখার কাহিনী। ‘এক পেয়ার কা নাগমা হে’- এই গানটি গেয়ে রাতারাতি ভাইরাল হয়েছিলেন রানু মন্ডল। আর এভাবেই লতা কন্ঠী হিসেবে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই তুমুল জনপ্রিয় হয়ে যান তিনি। রানু মন্ডল এর পরিবার পরিজন তাকে পরিত্যাগ করেছিলেন তাই তিনি রানাঘাট স্টেশনে থাকতেন। কিন্তু তার গুন দেখে তাকে প্রতিষ্ঠা করেন হিমেশ রেশমিয়া।

এরপর তার প্রযোজনা ও পরিচালনায় রানুর গলা থেকে আমরা নতুন গান শুনতে পাই। আর এই গানটি সবার কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে আর এই গল্পটি প্রায় সকলেরই জানা। এরপর তাকে ঘিরে হয়েছে অনেক অনেক মজা। তো কয়েক মাস যাবত তার কোন খোঁজ খবর আমরা পাইনি। তবে কি রানু মন্ডল আবার হারিয়ে গেলেন?

আর এই প্রশ্নের উত্তর হলো- না ।তিনি ধুয়ে-মুছে যাননি বরং এবার তার মানবিকতার নতুন দিক প্রত্যক্ষ করেছে দেশবাসী। ঘরের মধ্যে বন্দি থাকা পরিস্থিতিতেই তিনি সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন এলাকার দু:স্থ লোকজনের প্রতি। তার পাড়া-প্রতিবেশী কয়েকজনের সাথে একসাথে বাড়ি থেকে খাবারের ব্যবস্থা করেছেন রানু। ওই এলাকার দু:স্থ লোকজনের চাল ডাল আলু যোগান দিচ্ছেন তিনি।

আর তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি উত্তর দিয়েছেন, “ভগবান তাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। আর তাই এরকম দুঃসহ পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকতে চান তিনি।” আর একথা সত্যি যে- যেখানে ভালোবাসা, সেখানে ভগবান। আর মানুষের সততার ফল কখনও মূল্যহীন হয় না। কেউ যদি ভালো কাজ করে তার একদিন না একদিন সুফল ঘটবেই।

ভারতের বিভিন্ন জায়গা থেকে সাধারণ মানুষেরা রানু মন্ডলের এই কাজে প্রচুর প্রশংসা করেছেন। এতদিন তিনি গায়িকা হিসেবে সম্মান ও খ্যাতি পেয়েছেন। এবার একজন ভালো মানুষ হিসেবে তিনি সবার সম্মান পেলেন।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা পড়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

ranu mondai helps poor people
ranu mondal

Leave a Reply

Your email address will not be published.