“সুশান্ত আত্মহত্যা করতে পারে না”, বিস্ফোরক সুশান্তের প্রাক্তন বান্ধবী অঙ্কিতা

রিয়েল লাইফে ব্যালান্সড মানুষ ছিলেন, তার কখনোই আত্মহত্যার প্রবণতা থাকতে পারে না।সুশান্তের প্রাক্তন বান্ধবী অঙ্কিতা লোখান্ডের এরকমই বিস্ফোরক মন্তব্যে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে সুশান্তের মৃত্যু তদন্তকান্ডে। অঙ্কিতার দেওয়া এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে নানা তথ্য যা তদন্তের মোড় ঘুরিয়ে দিচ্ছে । হিন্দি ধারাবাহিক “পবিত্র রিস্তা”(Pavitra Rishta)-এর সময় থেকে সুশান্ত সিং রাজপুত অঙ্কিতা লোখান্ডের সম্পর্কের শুরু হয়। সেই সময় থেকে অঙ্কিতা খুব কাছ থেকে দেখেছেন সুশান্তকে। পরবর্তী সময়ে তাদের সম্পর্ক ভেঙে গেলেও অঙ্কিতা জানিয়েছেন, সুশান্ত সব সময় খুব খুশি থাকতেন এবং অঙ্কিতাকেও তিনি খুশি রাখার চেষ্টা করতেন।

১৪ জুন মুম্বাইয়ের বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত এর মৃতদেহ। প্রাথমিক পুলিশি তদন্তে জানা যায় তিনি মানসিক অবসাদ থেকে আত্মহত্যা করেছেন। এরপর থেকেই বিভিন্ন ঘটনায় জলঘোলা হয়েছে সুশান্তের মৃত্যু তদন্ত। এই ঘটনার জেরে বলিউডের বিভিন্ন প্রযোজক-পরিচালক প্রশ্নের মুখে পড়েন যাদের মধ্যে করণ জোহর, একতা কাপুর, মহেশ ভট্ট, সঞ্জয় লীলা ভন্সালীর মত হাই প্রোফাইল বলি-সেলেবদের নাম উঠে এসেছে। সম্প্রতি সুশান্ত মৃত্যু তদন্তে মহেশ ভট্ট সহ ৪০ জনকে জেরা করা হয়েছে। এরই মধ্যে একদিনে সুশান্তের প্রাক্তন ও মৃত্যুর আগের বান্ধবী অঙ্কিতা লোখান্ডে ও রিয়া চক্রবর্তীর পোস্ট করা ভিডিও নেট দুনিয়ায় আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। 

সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে অঙ্কিতা আরও জানান যে, সুশান্ত এবং তিনি সাত বছরের সম্পর্কে ছিলেন। তিনি সুশান্তের স্বপ্নগুলো জানতেন এবং সুশান্ত কতটা প্যাশনেট ছিলেন তা তিনি দেখেছেন। তাই তার পক্ষে সুশান্তের আত্মহত্যা করার খবরটা বিশ্বাস করা কঠিন। সুশান্ত মৃত্যুর কারণ শুধুই অবসাদ নাকি বলিউডের সম্প্রতি সবচেয়ে আলোচ্য বিষয় নেপোটিজম তা জানার চেষ্টা করছে মুম্বাই পুলিশ।

গত সপ্তাহে অভিনেতার বাবা চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেন সুশান্তের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। মানসিক হেনস্থা ও আর্থিক তছরুপের মতো একাধিক অভিযোগ করেছেন অভিনেতা বাবা। ইতিমধ্যে মুম্বাই পুলিশ ও বিহার পুলিশের মধ্যে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়েছে। এই তদন্তে মুম্বাই পুলিশের বিরুদ্ধে অসহায়তা দেখানোর অভিযোগ তুলেছে বিহার পুলিশ।

শুক্রবার রিয়া চক্রবর্তীর পোস্ট করা ভিডিও নিয়ে শোরগোল পড়ে গেছে নেটদুনিয়ায় যেখানে রিয়া চক্রবর্তী বলেছেন, তিনি বিশ্বাস করেন সত্যের জয় হবেই। ঈশ্বর ও বিচারব্যবস্থার ওপর তার আস্থা রয়েছে। এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ED) তদন্তে আর্থিক তছরুপের তথ্য প্রমাণ মিলেছে। যেখানে ১৫ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে তার মৃত্যুর পর। ক্রমশ জলঘোলা এবং রহস‍্যের পাকদন্ডীতে তদন্ত নতুন মোড় নিচ্ছে রোজ। তদন্ত শেষে কোন সত্য উদঘাটন হয়, সেই সত্যের অপেক্ষায় সুশান্ত সিং রাজপুতের সমগ্র ভক্তকুল।