এই গোপন পদ্ধতিতে অডিশন ছাড়াই সিরিয়ালে চান্স পেলেন মিঠাই – Mithai Serial

সম্প্রতি জনপ্রিয়তার টিআরপিতে শীর্ষে রয়েছে আরও একটি ধারাবাহিক সেটি হল মিঠাই। একজন মিষ্টি মিঠাই বিক্রেতা কে নিয়ে তৈরি হয়েছে এই গল্পটি। যদিও এর আগে স্টার জলসাতে এরকম মহিলা ময়রা কে নিয়ে তৈরি হয়েছিল সিরিয়াল কিন্তু তবুও এই ময়রার গল্পটা একেবারেই অন্যরকম। সম্প্রতি মিঠাই চরিত্রে অভিনয়কারী সৌমি তৃষ্ণা কুন্ডু জানিয়েছেন যে, আমি মিষ্টি খেতে খুবই ভালোবাসি। এই ব্যাপারে শুধুমাত্র আমি এবং পরিচালক রাজেনদা সিদ্ধহস্ত। (Bangla Serial News: Soumitrisha Kundu Mithai gets a chance to act without audition)

এরপর যখন তাকে জিজ্ঞাসা করা হয় যে, এই চরিত্রের জন্য কিভাবে তিনি নিজেকে তৈরি করেছেন, তখন তিনি বলেন যে আমাকেই চরিত্রের জন্য শিখতে হয়েছে কিভাবে দুধ জ্বাল দিতে হয়, ছানা পাকাতে হয়। মনোহারা বানানো আয়ত্ত করতে হয়েছে আমাকে।(Mithai Serial Wiki, Cast)

সৌমিত্রা জন্মগত বারাসাতের মেয়ে। তার কলকাতায় আসার ব্যাপারটা বেশ হঠাৎই হয়ে যায়। একটি ব্র্যান্ডের হয়ে মডেলিং করতে শুরু করেছেন তিনি। তখন চাইলে তার ছবি পছন্দ হয়নি। সেই সময় তিনি অডিশন না দিয়েই সুযোগ পেয়ে যান “এ আমার গুরুদক্ষিণা” ধারাবাহিকের নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করার জন্য। এরপর গোপাল ভার, অলৌকিক না লৌকিক, জয় কালী কলকাত্তাওয়ালী, সিরিয়ালে অভিনয় করার পর যখন তিনি অভিনয় করেন কনে বউ কে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করার জন্য, যতদিন অনেক পরিচালকের চোখে পড়ে গেছেন তিনি।

কনে বউ ধারাবাহিকের কাজ শেষ হতে না হতেই তিনি পেয়ে যান মিঠাই চরিত্রে অভিনয় করার জন্য অফার। তবে তার কাছে একটি মাত্র গর্বের বিষয় হলো, আজ অব্দি কাজ পেতে কোন অডিশন দিতে হয়নি তাকে।

চরিত্রের সঙ্গে মিল এবং অমিল জানতে চাইলে তিনি বলেন যে, মিঠাই এর সঙ্গে অনেক জায়গায় মিল থাকলেও মিল রয়েছে শুধুমাত্র একটি জায়গায়। মিঠাই এবং আমি দুজনেই রান্না তো দূরের কথা কিভাবে গ্যাস জ্বালাতে হয় তাই জানিনা। আমার হাতে কোন জিনিস থাকলেই পড়ে যায়। সারাদিনে একবার দুবার পড়ে যাওয়া অথবা হাতে পায়ে লেগে যাবে আমার কাছে নতুন ঘটনা কিছু নয়। কোনদিন যদি আমার হাত থেকে কিছু না পড়ে যায় তখন সকলে ভয় পেয়ে যায়।

তবে এই অল্প সময়ে সাফল্যের জন্য তিনি শুধুমাত্র ধন্যবাদ জানাতে চান তার বাবা-মাকে। তারা আজও সব সময় তাকে আগলে রাখেন। নিজের পারিশ্রমিকের পুরো টাকাটা বাবা মার হাতে তুলে দিয়ে গর্ববোধ করেন অভিনেত্রী। তবে যদি সে ভবিষ্যতে একটি বাড়ি কিনে দিতে পারেন তাহলে আরো বেশি গর্বিত হবেন বলেই জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

ধারাবাহিকের প্রত্যেকে মিঠাই কি ভীষণ ভাবে ভালবাসে। কাজের ফাঁকে তাকে খাইয়ে দিতে ছাড়েন না কেউ। এখন তিনি ওপেন ইউনিভার্সিটি ইংলিশ অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। এখনও প্রেম টেম না করলেও ভবিষ্যতে করার ইচ্ছা আছে তার। তবে কতদিন লুকিয়ে নয় সকলের সামনে চিৎকার করে বলবেন যেদিন প্রেমে পড়বেন।

soumitrisha kundu mithai gets a chance to act without audition
এই গোপন পদ্ধতিতে অডিশন ছাড়াই সিরিয়ালে চান্স পেলেন মিঠাই – Mithai Serial