চুমু খেয়ে করোনা সারিয়ে তোলা তান্ত্রিক মরলেন করোনা রোগে

আমরা প্রত্যেকেই অবগত যে করোনার মতো মহামারী কে ঠেকানোর জন্য গোটা বিশ্বের বড় বড় বিজ্ঞানী চিকিৎসকরা প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এখনো পর্যন্ত তারা কোনো সাফল্য পাননি। এই পরিস্থিতিতে মধ্যপ্রদেশের রত্লমের এক তান্ত্রিক দাবি করেছিলেন শুধুমাত্র ঝাড়ফুঁক করেই করোনা রোগীকে সুস্থ করে তুলতে পারবেন।

আর তার সুস্থ করার ধরণ ছিল অদ্ভুত রকম। যে ব্যক্তি তার কাছে রোগ উপশমের জন্য আসতেন তার হাতে চুমু খেয়ে তিনি তাকে করোনা রোগমুক্ত করে দিতেন। আর প্রকৃতপক্ষে ঝাড়ফুঁক করেই তিনি রোজগার করতেন। এরপর জুন মাসের 3 তারিখে তান্ত্রিকের শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবাণু পাওয়া যায়। আর তার পরদিনই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। আর এরপর থেকেই তান্ত্রিকের আশেপাশে যারা এসেছে তাদের খোঁজ করছে প্রশাসন।

জানা গেছে তান্ত্রিকের বাড়ির 7 জন লোকই ইতিমধ্যে করোনা রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। আর তার কাছে যারা সুস্থ হওয়ার জন্য গিয়েছিলেন তাদের কুড়িজন করোনা রোগে আক্রান্ত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এরকমভাবে পরবর্তীকালে কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে যাতে করোনা রোগকে আরও বেশি করে না ছড়ায় তার জন্য প্রশাসন গুরুত্বপূর্ণ ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। আর সেই তান্ত্রিকের সংস্পর্শে যারা যারা এসেছিলেন তাদের খোঁজ খবর নিতে শুরু করেছে তার প্রশাসন।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.