মৎস্যজীবীর ভাগ্য ফেরালো সোনার হৃদয়ের মাছ, রাতারাতি লাখপতি

বৃহস্পতিবার বঙ্গোপসাগরের ধামরা উপকূলে ধরা পরল একটি বিশাল আকার তেলিয়া মাছ (Giant Telia fish is caught on Dhamara Banks, the Bay of Bengal)। ওড়িশার কেন্দ্রপাড়া জেলার ব্লকের মৎস্যজীবী গোবিন্দ মন্ডল এর জালে উঠেছে এই বিশাল আকার মাছটি। ভদ্রক জেলার চাঁদবালি সৈকতের মৎস্য নিলাম কেন্দ্রে এই মাছটি মুম্বাইয়ের এক ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা এজেন্ট ৮ হাজার টাকা কেজি দরে মোট ১.৫ লাখ টাকায় কিনে নিলেন ( The fish of the golden heart – Ghol or Telia fish makes the fisherman a millionaire overnight. Fisherman Gobinda Mondal from Kendrapara, Odisha catches the Ghol fish)।

এই বিশাল মাছ দেখার জন্য ওড়িশার ওই নিলাম ঘরে বড়োসড়ো ভিড় জমে যায় মানুষের (Auction of the Ghol fish on Chandabali Banks, Bhadrak Bazar)। প্রথমে দর শুরু হয় ৬০০০ টাকা কেজি থেকে, এবার আস্তে আস্তে দাম বাড়তে থাকে। অবশেষে সেই দাম শেষ হয় ৮০০০ টাকা কেজিতে।

ঔষধি গুনের জন্য চিরকালই গোল মাছের চাহিদা বরাবর থাকে সর্বাগ্রে। তার ওপর মাছটির ওজন অতিরিক্ত বেশি হওয়ায় দাম লাখ এর গণ্ডি পেরিয়ে যায়।

ghol fish on gobinda mandals net
মৎস্যজীবী গোবিন্দ মন্ডল এর জালে উঠেছে ঘোল বা তেলিয়া মাছ

উড়িষ্যা মৎস্য দপ্তরের দেপুটি ডিরেক্টর বসন্ত কুমার দাস (Mr. Basanta Kumar Das, Deputy Director of Odisha Fisheries Dept.) জানিয়েছেন, “এই মাছের মধ্যে আয়রন, আয়োডিন, ম্যাগনেসিয়াম, ফ্লোরাইড থেকে শুরু করে আরো গুরুত্বপূর্ণ খনিজ রয়েছে। এছাড়াও মাছের পাখনা থেকে অস্ত্রোপচারে ব্যবহৃত সলিউবল স্টিচ পাওয়া যায়।মাছের চামড়া ছাড়াও উচ্চমানের কোলাজান থেকে তৈরি হয় বিভিন্ন ঔষধ এবং প্রসাধন সামগ্রী।”

তিনি আরো জানিয়েছেন যে,”এই মাছটিকে বলা হয় সোনার হৃদয় যুক্ত মাছ। সোনার হৃদয় যুক্ত মাচ বলার কারণ হলো মূলত ইন্দো প্যাসিফিক অঞ্চলের মানুষেরা এই সামুদ্রিক মাছের হৃদযন্ত্র একাধিক ঔষধ সামগ্রী হিসাবে ব্যবহার করে থাকেন।”