পৃথিবীর দীর্ঘতম সামুদ্রিক জীব আলোড়ন সৃষ্টি করল নেট দুনিয়ায়

বিজ্ঞানীদের মতে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি রহস্য লুকিয়ে রয়েছে সমুদ্রের তলদেশে। সমুদ্র সম্পর্কে মাত্র ৫% জানা গিয়েছে বাকি এখনও রহস্যের আড়ালে। সামুদ্রিক বিজ্ঞানীদের মতে সব মিলিয়ে প্রায় ৩৭০ প্রজাতির হাঙ্গরের অস্তিত্ব পাওয়া যায় সমুদ্রবক্ষে (365 Reporter Mystery News : World’s largest fish goes viral in the internet)।

সবচেয়ে বড় আকারের হাঙ্গর প্রজাতি হল হোয়েল শার্ক। হোয়েল শার্কের মধ্যে স্ত্রী হোয়েল শার্ক পুরুষদের তুলনায় দৈর্ঘ্যে বড় হয় (Female Whale Sharks are greater in length than Male Whale Shark)। অস্ট্রেলিয়ার পশ্চিম উপকূল নিঙ্গালু রিফে দশ বছর ধরে ৫৪ টি হোয়েল সার্কের ওপর সমীক্ষা চালিয়েছেন গবেষকরা (Shark in Ningaloo Reef)।

worlds largest colourful sea fish
সমুদ্রের বর্ণময় মাছ ((ফটো ক্রেডিটঃ ইউটিউব)

সেই সমীক্ষা থেকেই জানা গিয়েছে বয়স কম থাকাকালীন পুরুষ ও স্ত্রী হোয়েল শার্ক দ্রুত বৃদ্ধি পায়। প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরেও দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি পায় স্ত্রী হোয়েল শার্কের। ফলে পুরুষের তুলনায় বেশ কিছুটা বড় হয় স্ত্রী হোয়েল শার্ক।

অষ্ট্রেলিয়ান ইনস্টিটিউট অফ মেরিন সায়েন্সের গবেষক মার্ক মিকান বেশ কিছু তথ্য প্রকাশ করেছেন (Mark Mikan, Australian Institute of Marine Science)। তিনি জানিয়েছেন, পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেখা গিয়েছে পুরুষ হোয়েল শার্ক প্রথম পর্যায়ে স্ত্রীর হোয়েল শার্কের চেয়ে দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পায়। কিন্তু ৩০ বছরে প্রাপ্ত বয়স্ক হয়ে যাওয়ায় ২৬ ফুট দীর্ঘ হয় পুরুষ হোয়েল শার্কের।

স্ত্রী শার্ক প্রাপ্তবয়স্ক হয় ৫০ বছর বয়সে। তখন তার দৈর্ঘ্য হয় ৪৬ ফুট। এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে দীর্ঘ হোয়েল শার্কটির দৈর্ঘ্য ৬০ ফুট। মার্ক মিকান জানিয়েছেন, তারা গবেষণায় দেখেছেন স্ত্রী ও পুরুষ শার্কের বৃদ্ধি ভিন্ন হারে হয়। তাদের এই গবেষণা নিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে নেট দুনিয়ায়।