মোবাইলেই নষ্ট 12 ঘন্টা! তবু উচ্চমাধ্যমিকে প্রথম স্রোতশ্রী ?

এ বছর 2020 সালে উচ্চমাধ্যমিকে সর্বোচ্চ নম্বর উঠেছে 499 আর মোট নম্বর ছিল 500। আর এই নম্বর পাওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেছে সাখাওয়াত মেমোরিয়াল এর ছাত্রী স্রোতশ্রী রায়। সে কলকাতার বাসিন্দা।

স্রোতশ্রী জানিয়েছে সবগুলো পরীক্ষা দিতে পারলে আরো ভালো লাগতো। প্রথম স্থান অধিকার করলেও গলায় হতাশা ফুটে উঠেছে সাখাওয়াত মেমোরিয়াল গভর্নমেন্ট গার্লস হাই স্কুলের ছাত্রছাত্রীর। তারপর নম্বর 499 অর্থাৎ টোটাল নম্বর থেকে মাত্র এক নাম্বার কম পেয়েছে। অংক, ফিজিক্স, স্ট্যাটিসটিক্স, কেমিস্ট্রি তে 100 তে 100 পেয়েছে। ইংরেজিতে 99 আর বাংলায় 92 পেয়েছে। আর এই করোনা মহামারীর কারণে ফিজিক্স, স্ট্যাটিসটিকস ও কেমিস্ট্রি পরীক্ষাই দিতে পারেনি সে অন্যান্য পরীক্ষার্থীদের মত।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা গেছে এত বড় সাফল্য পাওয়ার প্রধান কারণ হিসেবে অনেকক্ষণ ধরে পড়া, খুঁটিয়ে-খুঁটিয়ে বই পড়া এরকম আনসার-ই সবার কাছ থেকে মেলে। ধারণা করা হচ্ছিল শ্রোতাপ্রিয় তার থেকে আলাদা কিছু বলবেনা। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে প্রথম স্থান অধিকার কারী এই ছাত্রী উত্তর দিলেন। টেস্টের আগে পর্যন্ত মোবাইল নিয়ে প্রচন্ড পরিমানে আসক্ত হয়ে পড়েছিল স্রোতশ্রী। কোন কোন দিন দিনে 12 ঘন্টা সময় কাটিয়েছে মোবাইল নিয়ে।

স্বাভাবিকভাবেই এভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় সময় নষ্ট করার জন্য এত মেধাবী হওয়া সত্ত্বেও ফলাফল ভোগ করতে হয়েছিল। টেস্টে মাত্র 80 শতাংশ নম্বর পেয়েছিল ফলে সে মুষড়ে পড়ে। পরবর্তীকালে স্কুল এবং গৃহ শিক্ষকদের পরামর্শ আর কাউন্সেলিংয়ে মোবাইল আসক্তি থেকে নিজেকে দূর করতে সক্ষম হয়। এরপর দিনে 6 থেকে 7 ঘন্টা পড়াশোনা আর সেগুলো বারবার রিভিশন করতে করতেই ভাল রেজাল্ট করতে সক্ষম হয়েছে।

ভবিষ্যতের স্বপ্ন?

জানা গেল ভবিষ্যতে কম্পিউটার সাইন্স নিয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং এ ভর্তি হতে চাই সে। তবে বিদেশে পড়তে যাওয়ার সে রকম ভাবে কোনো ইচ্ছা নেই। সে তার বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান আর বাবা মায়ের বয়স হয়েছে তাই। বাবা মাকে একা ফেলে বাইরে যেতে ইচ্ছুক না কোনোভাবেই। মূলত তার মাধ্যমিক অন্য স্কুলে পড়তো। যখন সাখাওয়াত এগারো ক্লাসে ভর্তি হল তখন প্রায় এক মাস দেরি হয়ে গেছে অনেকটা পড়াও এগিয়ে গেছে। ফলে তাকে শুরুতে বিশাল চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হয়েছিল। অনেক স্বাগতম শ্রুতি স্মৃতি।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিনের গুরুত্বপূ্র্ণ খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.