দীর্ঘক্ষণ লিপস্টিক স্থায়ী হবে কিভাবে? জেনে নিন এক ঝলকে

সারাদিন অফিস বা কোথাও বেড়াতে গেলে দীর্ঘক্ষণ লিপস্টিক স্থায়ী করার বিষয়টি খুবই জরুরী। অনেক সময়ই খেতে গিয়ে বা দীর্ঘক্ষন থাকার ফলে লিপস্টিক উঠে যায়। কিছু খাবার পরেই দেখা যায় শুধু লিপস্টিকের বর্ডারটুকু রয়ে গেছে। মাঝখানে লিপস্টিক অবশিষ্ট নেই। এর ফলে অবশ্যই দেখতে খারাপ লাগার একটা বিষয় থাকে। সেজন্য লিপস্টিক লাগানোর সঠিক পদ্ধতি দেখে নিন এবং জেনে নিন কি করে লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হবে আপনার ওষ্ঠে (Fashion Tips : How to apply lipstick properly and to keep it for a longer period of time)।

ঠোঁটের কয়েকটি সরঞ্জাম হলো লিপলাইনার, কনসিলার, ফাউন্ডেশন, কমপ্যাক্ট পাউডার, পছন্দের লিপস্টিক এবং লিপগ্লস। ধাপে ধাপে লিপস্টিকের সাজসরঞ্জাম ব্যবহার করলে লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হবে (6 ingredients to prepare your lips for going out. These are: Lip Liner, Concealer, Foundation, COmpact Powder, favourite Lipstick and Lipgloss )।

প্রথম ধাপ: ঠোঁট প্রথমেই পরিষ্কার করে নিতে হবে। ঠোঁটের ওপরে মৃত কোশ তুলে ফেলার জন্য চিনি এবং লেবুর রস দিয়ে আপনি স্ক্রাবিং করতে পারেন। এরপর একটা নরম তোয়ালে ভিজিয়ে ঠোঁটে বুলিয়ে নিন। এরপর লিপ বাম লাগিয়ে নিলে ঠোঁটের আদ্রতা বজায় থাকবে অনেকক্ষণ।

দ্বিতীয় ধাপ: এবার ঠোঁটের বেস তৈরি করতে হবে। আঙুলের ডগায় সামান্য পরিমাণে কনসিলার নিয়ে ঠোঁটে বুলিয়ে নিন। চাইলে এর সঙ্গে মশ্চারাইজার মেশানো যেতে পারে। অনেকের ঠোঁট ত্বকের তুলনায় কালচে হয়। এটি দিয়ে কালচে ভাব লুকানো যায় এবং একটি মসৃণভাব আসে।

তৃতীয় ধাপ: কনসিলার লাগানো হয়ে গেলে এর ওপরে অল্প করে ফাউন্ডেশন লাগিয়ে ব্লেন্ড করে নিন।

চতুর্থ ধাপ: ফাউন্ডেশনের পর মেকআপ ব্রাশ দিয়ে অল্প পরিমাণে কমপ্যাক্ট পাউডার ঠোঁটের ওপরে লাগিয়ে দিলে মেক‌আপের বেস তৈরি হয়ে যাবে। ফলে দীর্ঘস্থায়ী হবে লিপস্টিক।

পঞ্চম ধাপ: এবার কাজ ঠোঁটের আউটলাইন তৈরি করা। ঠোঁটের বেস তৈরি করা হয়ে গেলে। এবার ঠোঁট ঠিক করে আকার প্রয়োজন। অনেকেরই ঠোঁটের শেপ ঠিক থাকেনা। সেক্ষেত্রে ঠিক করে শেপ দেওয়ার জন্য লাইনারের সাহায্য নিতে হয়। অনেকের ঠোঁট খুব পাতলা কিংবা খুব মোটা হয়। বা বর্ডার ডিফাইন করবার জন্য লিপলাইনার ব্যবহার করা হয়। যে রঙের লিপস্টিক ঠিক একই শেডের লিপলাইনার লাগানো প্রয়োজন। একেবারে এক না হলেও কাছাকাছি শেডের লিপলাইনার ব‍্যবহার করতে হবে।

ষষ্ঠ ধাপঃ বেস মেকআপ এবং ঠোঁট ডিফাইন করার পর এবারের লিপস্টিকের পালা। নিজের পছন্দের রঙের লিপস্টিক দিয়ে ঠোঁট ভরাট করতে হবে। ফিনিশিং টাচ হিসেবে ঠোঁটের মাঝখানে সামান্য লিপগ্লস দিয়ে ব্লেন্ড করে নিলে লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হবে (As a finishing task, blend your lips with some amount of Lipgloss to keep lipstick a longer period of time)।


উপরের সমস্ত ধাপগুলো সঠিকভাবে ব‍্যবহার করলে লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হবে। তবে গ্লসি লিপস্টিকের থেকে ম‍্যাট ফিনিস লিপস্টিক ব‍্যবহার করা বেশি সুবিধা‌জনক (You will get advantages of using Mat Finish Lipstick over Glossy Lipstick)। লিপস্টিক ব‍্যবহারে‌র পাশাপাশি আপনার ঠোঁটযুগলের পরিচর্যা‌ও বেশ জরুরী। সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।