শুধুমাত্র কি ন্যাকামির জন্যই বন্ধ হয়ে যাবে খড়কুটো, প্রশ্ন নেটিজেনদের

স্টার জলসায় দুটি বিখ্যাত ধারাবাহিক শ্রীময়ী এবং খড়কুটো। এই দুটি অনেকদিন ধরেই খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে। মানুষ মন থেকে পছন্দ করেছেন এই সিরিয়াল গুলিকে। কিন্তু কিছুদিন যাবত দুর্বল স্টরি লাইনের জন্য মানুষের মনে আগের মত জায়গা বানিয়ে রাখতে পারছেনা এই সিরিয়াল গুলো। (Bangla Serial News: netijens comment on Khorkuto serial screenplay)

শ্রীময়ীর পাশাপাশি অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক ছিল খড়কুটো। খড়কুটো ধারাবাহিকটি অল্প সময়ের মধ্যেই সকলের মন জয় করে নিয়েছিল। তৃণা সাহা ওরফে গুনগুনের মিষ্টি অভিনয় দেখতে ভালবাসতেন অনেকেই। সৌজন্যের সঙ্গে তার রাগ অভিমান ভালবাসার বলয়ের মধ্যে আমরাও যেন ডুবে যেতাম।

সম্প্রতি ধারাবাহিকে এসে গেছে নতুন মোড়। মিষ্টির হাত ধরে আসতে চলেছে নতুন অতিথি। কিছুদিন ধরেই তার খুবই শরীর খারাপ। তবে এই ব্যাপারটি পরিবারের সকলে অনুধাবন করতে পারলেও এই ব্যাপারে ওয়াকিবহাল নয় গুনগুন। তাই তাকে এই কথাটি জানানোর দায়িত্ব পেয়েছে সৌজন্যে। কেন মিষ্টি দিদির বমি এবং শরীর খারাপ করছে তা বোঝাতে গিয়ে রীতিমতো হিমশিম খেয়ে যেতে হচ্ছে সকলকে। সৌজন্যে বুঝতে পারছে না যে, এই ব্যাপারটি কিভাবে তাকে বোঝানো যাবে।

আর এইখানে হয়েছে বিপত্তি। সকলেই মনে করছেন যে, গুনগুন নামক চরিত্রটি যথেষ্ট প্রাপ্তবয়স্ক। একজন বিবাহিত নারীর পক্ষে এটি বুঝে যাওয়া খুবই সহজ যে, কোন সময়ে এরকম শরীর খারাপ হয় অন্য একজন নারীর। প্রাপ্তবয়স্ক একটি মেয়ে যে ইংলিশ মাধ্যমিক স্কুলে পড়াশোনা করেছে সে গর্ভবতী অবস্থায় সম্পর্কে কিছুই জানবেনা, তা কখনো হয় না।সকলে বুঝতে পারলেও সে কিছুতেই বুঝতে পারছে না এটা অতিরিক্ত বাড়াবাড়ি বলেই মনে হচ্ছে সকলের।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এক নেটিজেন লিখেছেন যে, তিনি তার বন্ধুর কথায় খরকুটো ধারাবাহিকটি দেখতে শুরু করেছিলেন। প্রথমে খুব ভালো লাগলো এখন একেবারেই ভাল লাগেনা সিরিয়াল টি দেখতে। দিন দিন যেন টিআরপি কমে আসছে তার। সিরিয়াল গুলি দেখলে মনে হয় যেন জোর করে হাসানোর চেষ্টা করেছে মানুষকে। তাই অবিলম্বে ধারাবাহিক গুলি বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করছে নেটিজেনরা।

netijens comment on khorkuto serial screenplay
শুধুমাত্র কি ন্যাকামির জন্যই বন্ধ হয়ে যাবে খড়কুটো, প্রশ্ন নেটিজেনদের