দুই দিনের ব্যবধানে দু’জন ভালোবাসার মানুষ হারালো সাকিবের জীবন থেকে

বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান ভীষণভাবে অসুস্থ শশুরকে দেখাশোনা করতে চেয়েছিলেন। আর তাই তিনি এমার্জেন্সি ভিত্তিতে গতকাল গভীর রাত্রে বেলায় আমেরিকাতে যাওয়ার যাত্রা শুরু করেন। তবে শেষ দেখা আর দেখতে পেলেন না। আমেরিকাতে যাওয়ার পূর্বেই শুনতে পেলেন খারাপ সংবাদ। (Shakib Al Hasan loses his two loved ones within two days)

আজ দুপুরের দিকে সাকিবের শ্বশুরমশাই অর্থাৎ মমতাজ আহমেদ যার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর তিনি মৃত্যুবরণ করেন। শেষ মুহূর্তে শশুরের পাশে থাকতে পারলেন না সাকিব। (Shakib er soshur er mrittu )

পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে জানা গেল, দীর্ঘদিন ধরে যুক্তরাষ্ট্রে সাকিবের শশুর শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যায় কষ্ট পাচ্ছিলেন। ফলে মাঝেমাঝেই তাকে হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হচ্ছিল। তবে সম্প্রতি তার শরীর আরো খারাপ হয়ে যায়।

এদিকে সাকিব বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের জেমকন খুলনা দলে খেলেছিলেন। তার দল ফাইনালে উঠে গিয়েছিল। তবে জরুরি পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় তাকে ফাইনাল না খেলেই যুক্তরাষ্ট্রে দৌড়াতে হয়।

তবে সেখানে যাওয়ার আগেই শুনলেন দুঃসংবাদ। তার স্ত্রী উম্মে আহমেদ শিশির এর বাবা মমতাজ আহমেদ অর্থাৎ তার শশুর আমাদের সকলের ছেড়ে চলে গেলেন। (The father of Shakib Al Hasan’s father-in-law aka the father of his wife Umme Ahmed Shishir)

মমতাজ আহমেদের বাসস্থান বাংলাদেশের নরসিংদীতে। তবে তার মৃতদেহ কোথায় দাফন করা হবে তা এখনো জানা যায়নি। প্রকৃতপক্ষে সাকিব আমেরিকাতে পৌঁছে গেলে তখন সকলের পরামর্শ আসল সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

আবার এর ভেতর দুদিন পূর্বে অন্য একটি সুসংবাদের সম্মুখীন হয়েছিলেন সাকিব। গত সোমবারে পৃথিবী ছেড়ে চলে গিয়েছেন তার ফুফা ওমর আলী। ফুফা ওমর আলীর বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। আর তাকে কবরস্থ করা হয় মাগুরাতে।

Shakib Al Hasan loses his two loved ones within two days
দুই দিনের ব্যবধানে দু’জন ভালোবাসার মানুষ হারালো সাকিবের জীবন থেকে (Credit : @Shakib.Al.Hasan on Facebook)