পিজি হাসপাতাল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর মেডিকেল রিপোর্ট চুরি ? রহস্য ঘনীভূত

নন্দীগ্রামে সবার জন্য ১০ ই মার্চ উপস্থিত হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং সেখানেই তার সঙ্গে দুর্ঘটনা ঘটে। তাকে সেখান থেকেই নিয়ে যাওয়া হয় চিকিৎসার জন্য এসএসকেএম-এ। ওই হাসপাতালেই তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন, কিন্তু ওই হাসপাতালে মুখ্যমন্ত্রী চিকিৎসাকে নিয়ে এবার রহস্য জোরালো হলো, কারণ মুখ্যমন্ত্রীর মেডিকেল রিপোর্ট চুরি হওয়ার খবর পাওয়া গেল। (CM Mamata Banerjee Medical Report and Injury News : Mamata Banerjee medical report case in SSKM hospital)

এইরকম একটি কাজ করার জন্য অভিযোগ উঠেছে দুই কর্মীর বিরুদ্ধে যারা হাসপাতালে কর্মরত পাতালের সুপার জানিয়েছেন যে, কেন এই ধরনের ঘটনা ঘটলো সেটার বিষয়ে অবশ্যই তদন্ত করা হবে। খবর সূত্রে জানা গেছে যে, এই শুক্রবার দিন মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসার সমস্ত মেডিকেল রিপোর্ট গুলি নিয়ে উডবার্ন ওয়ার্ডের মধ্যে সাড়ে ১২ নম্বর কেবিন টিতে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী এবং সেখান থেকেই তার সমস্ত নথিপত্র গুলি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল রেকর্ডরুমে, সেই সময় হঠাৎ ঐ পাতালের দুজন কর্মী তারা ওই রিপোর্টগুলো ছবি তুলতে চান।

এই সমস্ত ঘটনাটি যখন হাসপাতালের সিনিয়র কর্মীদের আছে এসে পৌঁছায় তখনই তারা সেখানে দৌড়ে যায় বারণ করেন ওই ছবি ওই রিপোর্টগুলো ছবি তুলতে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কেন ওই কর্মরত কর্মীরা এই ধরনের ছবি তুলতে চাই ছিলেন? এখন এই বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট রহস্যের দানা বাঁধছে। অনেকের মনে হচ্ছে যে, এই ঘটনাটির পেছনে কোনো রাজনৈতিক সঙ্গতি আছে কিনা কারণ বিরোধীরা বলেছেন যে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সমস্ত হল সবই নাটক। সহানুভূতি পেতে এই ধরনের কাজ করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তাই এইরকম একটি সময়ে এই ধরনের একটি কান্ড সত্যিই রহস্যময়। আপাতত ওই দু’জন অভিযুক্ত কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তারা বলেছেন যে, মুখ্যমন্ত্রী কোথায় লেগেছিল এবং তিনি অসুস্থ ছিলেন কতটা সমস্ত কিছুই জানার জন্য তারা এই কাজটি করেছেন, এইরকম কাজ করার জন্য কেউ তাদের বলেনি। এই ব্যাপারটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সমস্তই সাধারণ বলেছেন তারা এই ঘটনাটি পুরো তদন্ত করছেন যদি ওই অভিযুক্ত কর্মচারীদের বিরুদ্ধে কোনো রকম প্রমান পাওয়া যায়,তাহলে অবশ্যই তাদের কড়া শাস্তি দেওয়া হবে।

cm mamata banerjee medical report case in sskm hospital
পিজি হাসপাতাল থেকে মুখ্যমন্ত্রীর মেডিকেল রিপোর্ট চুরি ? রহস্য ঘনীভূত