আয়ুর্বেদের হাত ধরে নিমেষে পেয়ে যান মুখের দুর্গন্ধের হাত থেকে রক্ষা

অনেক সময় আপনার মুখে দুর্গন্ধের জন্য আপনার চারপাশের মানুষ আপনাকে এড়িয়ে চলে। তিনবেলা ব্রাশ করলেও আপনার মুখের গন্ধ কিছুতেই যায় না। এমতাবস্থায় মানুষের সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব তৈরি হয়ে যায় আপনার। কিন্তু একেবারেই ভেঙে পড়লে হবে না। আপনাকে একমাত্র সঠিক উপায় বলে দিতে পারে আয়ুর্বেদ। ভারতের মতো দেশে বহু প্রাচীনকাল থেকে আয়ুর্বেদের ব্যবহার হয়ে আসছে। আয়ুর্বেদের মধ্যে নানা পদ্ধতি আমাদের খুব চেনা। আয়ুর্বেদের হাত ধরেই সহজে নিস্তার পাওয়া যাবে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ এবং দাঁতের সমস্যা থেকে।

অয়েল পুলিং পদ্ধতি: (365 Reporter Bangla Health and Lifestyle Tips : Home remedies to get rid of foul breath by applying Oil Pulling Method)

এই অয়েল পুলিং পদ্ধতিটি আসলে কি ? জেনে নেওয়া যাক বিশদে।

প্রথমত,একটি চামচে তেল নিন। নারকেল তেল, অথবা আমন্ড অয়েল হলে ভালো।

দ্বিতীয়তঃ, এই মিশ্রণটি ১৫ থেকে ২০ মিনিট মুখে রেখে দিন। তবে ভুলেও গিলে ফেলবেন না।
তৃতীয়ত, এবার মুখ থেকে তেল টা বের করে দিন।

চতুর্থত, সর্বশেষ কুলকুচি করে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

এই অয়েল পুলিং করলে আপনার মুখের যাবতীয় কিছু সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

causes of foul breath
মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ ও প্রতিকার (ফটো ক্রেডিটঃ গুগোল)

১) এই পদ্ধতির দ্বারা মরে যায় মুখের ভেতরে থাকা ব্যাকটেরিয়া।

আমাদের মুখের ভেতর বিভিন্ন রকমের ব্যাকটেরিয়া থাকে। তাদের মধ্যে বেশিরভাগ আমাদের দাঁতের ক্ষয় এবং মুখের বিভিন্ন সমস্যার জন্য দায়ী। অয়েল পুলিং পদ্ধতির ফলে এই সব ব্যাকটেরিয়া নষ্ট হয়ে গিয়ে দাঁত ক্ষয় এর হাত থেকে বাঁচিয়ে দেয়।

২) সহজেই মুক্তি পাওয়া যায় নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ থেকে।

বিভিন্ন রকম খাদ্যাভ্যাসের কারণে হোক অথবা দাঁতের যত্ন না নেওয়ার ফলে হোক আমাদের নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ সমস্যায় ভুগতে হয়। নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ থেকে আমাদের মুক্তি দেয় অয়েল পুলিং।

৩) ভালো রাখে দাঁতের মাড়ি কেও।

দাঁতের যত্নের পাশাপাশি মাড়িকে সুস্থ রাখতে হয় আমাদের। মাড়ি অকেজো হয়ে গেলে অচিরেই দাঁত ভেঙে পড়বে। অয়েল পুলিং এর মাধ্যমে মুখের ভেতরে থাকা জীবাণু নষ্ট হয়ে গিয়ে মাড়ি সুস্থ এবং সবল থাকে।

৪) এই পদ্ধতি লালা ক্ষরনে সাহায্য করে।

আমাদের মুখের জন্য লালা খুবই জরুরী। লালা তৈরি না হলে অনেক সময় মুখ শুকনো হয়ে যায়। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে লালা যদি তৈরি না হয় তাহলে জেরোস্তমিয়া হতে পারি। এর ফলে একই জায়গায় ব্যাকটেরিয়া জমি আমাদের দাঁতের সমূহ ক্ষতি করে। অয়েল পুলিং লালা ক্ষরণ সাহায্য করে।

৫) সুস্থ থাকে মানুষের মুখের ভেতরকার স্বাস্থ্য।

মুখের ভেতরে দাঁত এবং মাড়ি ভালো থাকলে সার্বিকভাবে রোগপ্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ে আমাদের।

তাহলে আজকেই দাঁতের ডাক্তারের কাছে না গিয়ে বাড়িতে করে ফেলুন অয়েল পুলিং। আর আয়ুর্বেদের হাত ধরে পেয়ে যান মুক্তির রাস্তা।