বাবা টাকা দেয় না বলে যুবক ওয়েব সিরিজ দেখে নকল অপহরণের নাটক করলো

ওয়েব সিরিজ যেটা এখন সাধারণত সিনেমা হলে গিয়ে সিনেমা দেখা এগুলোর থেকেও বেশি এইতো হয়ে গেছে। ওয়েব সিরিজে নানা রকম গল্প দেখানো হয় যেগুলি তে কোনো রকম বাধা নিষেধ থাকে না, যার ফলে সেখানে দেখানো হয় অনেক কিছুই যেটা বড় পর্দায় দেখানো সম্ভব হয়ে ওঠেনা এবং এখন এই ওয়েব সিরিজের প্রতি আকর্ষিত হয়েছে প্রচুর সংখ্যক টিনেজার্সরা। (New Delhi News : Young man shows fake kidnap case to his parents after watching web series)

অনেকের মতে এই সিরিজে দেখানো অনেক কিছু যার ফলে অপরাধও অনেক পরিমাণে বাড়তে থাকে। ওয়েব সিরিজ সহ অন্যান্য অনেক সিনেমাতেও এমন এমন গল্প তৈরি করা হয় যেগুলোকে আমরা অনেকেই আমাদের জীবনে ঘটানোর চেষ্টা করে থাকি। এই রকমই একটি ঘটনা নয়াদিল্লিতে। নাদিম নামের একটি ছেলে কাজ করত তার বাবার দোকানে, নাদিমের দুঃখ ছিল তার বাবা তাকে বেশি টাকা দেয় না, সে কখনো মদ খেতেও পারে না তার এই সমস্ত দুঃখের কথা বলতো তা এক ভাই আফতাবকে।

পরে দুজনে মিলে প্ল্যান করল ব্রেথ সিরিজের আদলে। দুজনে মিলে একটি মহিলার ফোন চুরি করে এবং তার পরে নাদিমের বাবাকে সেই চুরি করা ফোন থেকে ফোন করে জানানো হয় নাদিমকে অপহরণ করেছে এবং ছাড়াতে গেলে দুই লাখ টাকা দিতে হবে।

এই ঘটনাটির পরেই নাদিমের বাবা সরাসরি পুলিশের সাহায্য নেয়। দক্ষিণ-পূর্ব দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার আরবি মিনা সম্পর্কে বলেন যে ঘটনাটি সম্পর্কে তদন্ত করতে নামার পর যখন এলাকার সিসিটিভি গুলো দেখা হয়, তখন তারা কিছুই এরকম খুঁজে পায়না। পরে যখন নাদিমের ফোনের কল রেকর্ড গুলি পরীক্ষা করা হয় তখন দেখা যায় নাদিম একটি বান্ধবীর সঙ্গে যোগাযোগ করছেন।

সেই বান্ধবীকে যখন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তখনই জানা যায় যে নাদিম এবং তার ভাই আফতাব একসঙ্গেই রয়েছেন। এরপর যে মহিলার ফোন তারা চুরি করেছিল সেই মহিলা অভিযোগ করে পুলিশের কাছে, যে তার জামিয়া নগর থেকে একটি ফোন চুরি হয়ে গেছে এবং সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশরা দেখে তখন তারা বুঝতে পারে এই সমস্ত পিছনেই নাদিম এবং আফতাবের হাত। এর পরেই পুলিশ ওই দুইজনকে গ্রেপ্তার করে।

Young man shows fake kidnap case to his parents after watching web series
বাবা টাকা দেয় না বলে যুবক ওয়েব সিরিজ দেখে নকল অপহরণের নাটক করলো (প্রতীকী ফটো)