সুখকর দাম্পত্যে ভাঙ্গন ? কিভাবে আপনারা হতে পারেন সুখী দম্পতি ? সাহায্য করবে চাণক্য নীতি

আচার্য চাণক্য কে আমরা সকলেই চিনি। ভারতীয় শাস্ত্রীয় সেরা পণ্ডিতদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন তিনি। তার মত আজও বিংশ শতকে সমানভাবে উপকারী।তিনি নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করেছিলেন এবং পরবর্তী সময়ে তিনি সেখানকার শিক্ষক পদে নিযুক্ত হয়েছিলেন। পণ্ডিতেরা বিশ্বাস করেন যে, যে ব্যক্তি আচার্য চাণক্যের নীতি নিয়মিত অধ্যয়ন করেন, তার জীবন থেকে দুঃখ-দুর্দশা সহজেই দূর হয়ে যায়।শুধুমাত্র তাই নয় যে কোন বিপর্যয় তে অবিচল থাকার শক্তি এবং শিক্ষা পাওয়া যায় চাণক্যের দর্শন থেকে।

পন্ডিত চাণক্যের মত অনুযায়ী, স্বামী এবং স্ত্রীর সম্পর্ক হয় রেশম সুতার মত। স্বামী এবং স্ত্রীর সম্পর্ক প্রেম এবং বিশ্বাসের ওপর টিকে থাকে।প্রেম এবং বিশ্বাস এই দুটি যদি না থাকে তখন সম্পর্ক দুর্বলতা শুরু করে দেয়। এ সম্পর্কের মধ্যে যখন ফাটল দেখা যায়, তখন ব্যক্তিগত জীবনে বিভিন্ন অশান্তি এবং মনোমালিন্য দেখা যায়। স্বামী এবং স্ত্রীর সম্পর্কের মধ্যে যখন দূরত্ব সৃষ্টি হয়, তখন তাদের মধ্যে কোন ব্যক্তি যতই মেধাবী অথবা পন্ডিত হোক না কেন তারা মানসিক চাপের শিকার হতে থাকে।

happily married couple
সুখী দম্পতি (ফটো ক্রেডিট: পিন্টারেস্ট)

তাই সুখী দাম্পত্য জীবন লাভের শর্ত হিসেবে আচার্য চাণক্যের কতগুলি নিয়ম অবশ্যই মেনে চলা উচিত (365 Reporter Bangla Lifestyle News: Chanakya niti to lead a happy marriage life)।

বিবাহিত জীবনের মধ্যে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সুখের মধ্যে বৃহৎ সুখ খুঁজে নেবার চেষ্টা করুন। প্রতিদিনের ছোট ছোট আনন্দের মধ্যে বড় আনন্দ খুঁজে নিতে হবে। জীবনের কখনো কোনো সুখের মুহূর্ত কে হারাতে দেবেন না দেবেন না।একটি বিবাহিত সম্পর্কের মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হলো স্বামী এবং স্ত্রীর মধ্যে সম্মান এবং শ্রদ্ধা। স্বামী এবং স্ত্রীর মধ্যে সম্মান এবং শ্রদ্ধা না থাকলে কখনোই একে অপরের পাশে দাঁড়ানো যায় না দুঃসময়ে।প্রত্যেক স্বামী এবং স্ত্রী কে সুখ এবং দুঃখ উভয় সময় একে অপরের কে শ্রদ্ধা এবং সম্মান দেওয়া উচিত।

জীবনে খারাপ গুন গুলো সরিয়ে রেখে সব সময় ভালো জিনিস নিয়ে আলোচনা করা উচিত। এতে সম্পর্ক দৃঢ় এবং সুন্দর হয়ে ওঠে।