দুঃসংবাদ! অযোধ্যার রাম মন্দিরের পুরোহিতসহ 14 জন পুলিশ করোনা আক্রান্ত

রাম মন্দিরের (Ayodhya Ram Mandir) ভিত্তি পূজার অনুষ্ঠানটি অযোধ্যায় আগস্ট মাসের 5 তারিখে অনুষ্ঠিত করা হবে বলে জানানো হয়েছে। কিন্তু এরই মধ্যে একটি দুঃসংবাদ পাওয়া গেল।জানা গেল একজন পুরোহিত এবং 14 জন পুলিশ কর্মী যারা অযোধ্যার রাম জন্মভূমি কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত অবস্থায় ছিলেন তাদের করোনা ধরা পড়েছে।

ধারণা করা হচ্ছে যে, এই অনুষ্ঠানটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) ও 50 জন ভিআইপি মেম্বারদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান পুরোহিতের সহকারি প্রদীপ দাস ব্যক্ত করলেন যে তার করোনা টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবে আশার কথা হলো এই যে, অন্যান্য 4 জন পুরোহিত যারা অস্থায়ী মন্দিরে রয়েছেন তারা এবং প্রধান পুরোহিত সত্যেন্দ্র দাস,এদের প্রত্যেকেরই টেস্টের রেজাল্ট নেগেটিভ এসেছে। পুরোহিত ওদের আশেপাশে আরও 12 জন ব্যক্তি ছিলেন। তাদেরকেও টেস্ট করা হয়। আর তাদের রিপোর্ট নেগেটিভ পাওয়া গেছে।

মন্দিরের ট্রাস্ট বোর্ড (Ayodhya Temple Trust) ব্যক্ত করেছে যে, যে পুলিশ সদস্যদের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে তারা রাম জন্মভূমি কমপ্লেক্সে (Janmabhoomi Complex) পাহারাদান বা সুরক্ষার কর্তব্যে নিযুক্ত ছিলেন। এনাদের মধ্যে 4 জন পুলিশ ম্যান এই কমপ্লেক্সের ভেতরে স্থায়ীভাবে সুরক্ষা প্রদান করেন। অপরদিকে অন্যেরা মাঝে মাঝে এদিক ওদিক ঘুরে কর্তব্য সম্পন্ন করেন।

এই প্রসঙ্গে একটা কথা না বললেই নয়, গত শনিবারে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ( Yogi Adityanath) রাম জন্মভূমি কমপ্লেক্সে ভিজিট করেছিলেন। আগস্ট এ যে অনুষ্ঠানটি সংগঠিত করার পরিকল্পনা চলছে তা খতিয়ে দেখার ছিল তার মূল উদ্দেশ্য।

সেদিনে তোলা ছবি এবং ভিডিও ফুটেজ থেকে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিল যে, প্রদীপ দাস যে পুরোহিতের করো না টেস্টে পজিটিভ এসেছে, তিনি পূজা পরিক্রমা সময়ে মুখ্যমন্ত্রীর পাশেই ছিলেন। তাছাড়া রাম জন্মভূমির প্রধান পুরোহিত সত্যেন্দ্র দাস কেও লোকজনের পাশেই দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে।আর মন্দিরের প্রধান পুরোহিত ই এই অনুষ্ঠানটি সংগঠনে নেতৃত্ব প্রদান করবেন।

এই অনুষ্ঠানটি সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করার জন্য সুন্দরভাবে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। তার মধ্যে প্রধান হলো যে এক্ষেত্রে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত সুরক্ষা বিধি মেনে পরিকল্পনা মোতাবেক অনুষ্ঠানটি এগিয়ে যাবে। এ প্রসঙ্গে একটা কথা বলা যায় যে, বর্তমানে অযোধ্যাতে 375 জন করোনা রোগী রয়েছেন। আর উত্তর প্রদেশ ২৯,৯৯৭ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছে।

ট্রাস্ট আরো জানালো,”200 জনের কাছাকাছি মানুষ এই অনুষ্ঠানটিতে যোগদান করবে। আর এদের মধ্যেই পুরোহিত, পুলিশকর্মী, অতিথি এবং লোকাল লোকজনকে গোনা হয়েছে।”

রামের জন্মভূমি হতে তিন কিলোমিটার দূরে প্রধানমন্ত্রীর হেলিপ্যাড রাখা হয়েছে। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানটির জন্য এক বিশাল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। মন্দিরের যে রাস্তা ছিল সেটি আরো চওড়া করা হয়েছে। পুরো রাস্তার দু’পাশ দিয়ে রামের জীবনযাত্রার গ্রাফিটি পেন্টিং করা হয়েছে।

মন্দির ট্রাস্ট এর মত অনুযায়ী, গোটা অযোধ্যা এলাকা জুড়ে হিউজ সিসিটিভি পর্দা বসানো হয়েছে। এর ফলে ভক্তদের অনুষ্ঠানটি দেখতে কোন রকম অসুবিধা হবে না।

যে সমস্ত প্রবীণ নেতা মন্ত্রীগণ মন্দির আন্দোলনের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে কাজ করে গেছেন তাদেরকে নিমন্ত্রণ পাঠানো হয়েছে।আর এই লিস্টের মধ্যে বিজেপির বর্ষিয়ান নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি, মুরলী মনোহর, যোশী, উমা ভারতী, বিনয় কাটিয়ার এবং সাধভি ঋতাম্ভারার মত হেভিওয়েট নেতাগণ রয়েছেন।তাছাড়া বিজেপিতে আদর্শ সম্পর্কে পরামর্শদাতা, স্বয়ংসেবক সংঘের মূল ব্যক্তিত্ব মোহন ভাগবত সহ আরো প্রবীণ বিদগ্ধ এই কর্মসূচিতে যোগদান করবেন বলে ধারণা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.