“ধর্ষণ নয় পরকীয়াতে খুন আদিবাসী মহিলা,” ডেবরা কাণ্ডের পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার

দেভারাকণ্ড উঠে এলো আরো একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য। ধর্ষণ নয় বরং বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের জেরে খুন হতে হয়েছিল আদিবাসী মহিলা কে, এমনটাই দাবি করলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ অফিসার দিনেশ কুমার। তিনি জানিয়েছেন যে, গোটা ঘটনার তিন দিনের মধ্যে মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করতে পেরেছে পুলিশ। জেরার মুখে পড়ে নিজের সমস্ত দোষ স্বীকার করে নিয়েছে অভিযুক্ত। (West Medinipur crime News : Paschim Medinipur Police Super DInesh Kumar finds new insights in Debra housewife murder case)

রবিবার সকালে ডেবরা থানার ইসলামপুরের পরিত্যক্ত জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল একজন আদিবাসী গৃহবধূর দেহ। ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছিল, এমন একটি অভিযোগ করে গোটা এলাকার মানুষ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে সোমবার রাত পর্যন্ত ডেবরা থানার সামনে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন বিজেপি মহিলা মোর্চা সদস্যরা। (Dharshan noy porokiya te khun grihabadu bollen Police Babu)

মৃতের বাড়িতে গিয়েছিলেন তারা। কিন্তু এবার অন্য একটি প্রশ্ন সকলের সামনে উঠে এলো। সত্যিই কি ধর্ষণ করা হয়েছিল তাকে? সেই সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার। সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানালেন যে, মৃতার একটি বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। শৈল দিয়াশি নামে একজন ব্যক্তির সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল তার। টাকা-পয়সা নিয়ে কোনো কারণে তাদের মধ্যে গণ্ডগোল হয়েছিল।

জানা গিয়েছে যে, অভিযুক্ত ব্যক্তির বাড়ি ডেবরা থানার বারুণীয়া গ্রামে। সমস্ত ফোনের কল ডিটেইলস ভালোভাবে দেখে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছেন যে, ঘটনার মাত্র তিন দিনের মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করার জন্য নগদ পুরস্কার দেওয়া হবে থানার সমস্ত কর্মীদের।

এমনকি যে বা যারা এই খুনি ধর্ষণ বলে অপপ্রচার করেছে, তারা যথাযথ শাস্তি পাবে। বুধবার অভিযুক্তকে তোলা হবে আদালতে। তারপর তাকে শাস্তির জন্য দাবী জানানো হবে।

Paschim Medinipur Police Super DInesh Kumar finds new insights in Debra housewife murder case
“ধর্ষণ নয় পরকীয়াতে খুন আদিবাসী মহিলা,” ডেবরা কাণ্ডের পুলিশ সুপার দিনেশ কুমার