পুলিশ প্রেমিকাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা প্রেমিকের! গ্রেফতার ঘাতক

বাংলাদেশের মাদারীপুর জেলায় পুলিশের পিএসআই অনিমা বাড়ৈকে কুপিয়ে হত্যা করার চেষ্টা করে ঘাতক। এরপর সেই ঘাতক জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে সোমবার গভীর রাত্রে রাজধানীর হেমায়েতপুরের যাদুরচর এলাকা থেকে জাকির হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এই জাকির হোসেন মূলত গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার শিমুল বাড়ি গ্রামের ছেলে। তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, মোবাইল নাম্বার কালেক্ট করে হিন্দু পরিচয় দিয়ে মাদারীপুর সদর মডেল থানার পিএসআই অনিমার সাথে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে জাকির। পরে যখন জাকির অনিমা কে বিবাহের জন্য প্রস্তাব পেশ করে তখন অনিমা প্রতারণার ব্যাপারটি বুঝতে পারে।

ফলে ব্যাপারটি অস্বীকার করে। আর তাই জাকির প্রচন্ড ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। আর এপ্রিলের 5 তারিখে মাদারীপুর শহরের লেকের পাড়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করার চেষ্টা করে জাকির। এরপর গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে অনিমাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর মোবাইলের কল লিস্ট খতিয়ে দেখে গ্রেপ্তার করা হয় প্রতারক জাকিরকে।

এই পুরো ব্যাপারটি মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান পুলিশের সংবাদ সম্মেলনে খোলসা করে বলেন। তিনি বলেন, রণবীর পরিচয় দিয়ে রাজধানী ঢাকায় থাকাকালীন অবস্থায় অনিমার সঙ্গে জাকিরের পরিচয় হয়। আরো জানা গেছে যে রণবীরের পরিবারে এক স্ত্রী ও এক সন্তান রয়েছে। মূলত অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে অনিমাকে টার্গেট করেছিল জাকির। আর প্রতারণা করেছিল।

এই ঘটনার ফলে এপ্রিলের 6 তারিখে অনিমার বড় ভাই কপিল বাড়ৈ বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে হস্তান্তর করা হয়। আর পুলিশের এই সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আব্দুল হান্নান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ বদরুল আলম (সদর সার্কেল), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান, সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল ইসলামসহ পুলিশের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

হাই বন্ধুরা, প্রতিদিন বাংলাদেশের খবর পাওয়ার জন্য bangla.365reporter বুকমার্ক করে রাখুন। আর ফেইসবুক, টুইটার এবং পিন্টারেস্টে আমাদের সঙ্গে কানেক্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *