বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস : পড়ুন জীবন সম্পর্কে স্বামী বিবেকানন্দের মূল্যবান বাণী

এই পৃথিবীতে যার জন্ম হয়েছে তার মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী (Nothing is immortal)। মৃত্যু কোন ভাবেই ঠেকানো সম্ভব নয়। তবে এই মানব জীবন বিভিন্ন উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায়। ফলে জীবন এককথায় বিউটিফুল (But the life is beautiful)। জীবনে দুঃখ আছে বলেই সুন্দর মুহূর্তের আগমন ঘটে। আর সে কারণেই প্রতিটি মানুষকে জীবনের সুখ, দুঃখ, হতাশা প্রতিটি মুহূর্তকে মোকাবেলা করতে হবে।

বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস মূলত পালন করা হয় আত্মহত্যার প্রবণতাকে রোধ করার জন্য (The world suicide prevention day is for preventing suicide)। আর এই মুহূর্তে সেটা একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তো চলুন বন্ধুরা, আজকে ওয়ার্ল্ড সুইসাইড প্রিভেনশন ডে তে স্বামী বিবেকানন্দের জীবন সম্পর্কে গভীর মূল্যবান উক্তি জেনে নেই (The motivational speech about Swami Vivekananda in The world suicide prevention day )। তিনি সবিস্তারে ব্যাখ্যা করেছেন কিভাবে সমস্যার মোকাবেলা করা সম্ভব।

১. এই পৃথিবীর সমস্ত শক্তি অলরেডি আমাদের হয়ে গিয়েছে। আর আমরাই শুধুমাত্র ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ না করে হাত এগিয়ে দেয়। আর পরক্ষনেই ভুল বুঝতে পারি। আর দেখতে পাই যে সেখানে পুরো অন্ধকার।
২. তোমার লক্ষ্যে পৌঁছানোর না পর্যন্ত উঠে দাঁড়াও, জেগে ওঠো। আর কাজ চালিয়ে যাও। কখনো তোমার কথা চিন্তা করোনা।

৩. এই পৃথিবী একটা বড় জিমনেসিয়াম। আর এখান থেকেই আমাদের নিজেদেরকে শক্তিশালী করে তুলতে হবে। অর্থাৎ নিয়মিত ব্যায়াম করার কথা তিনি বলেছেন। তার সাথে মানসিক দৃঢ়তা অর্জন করার কথা বলেছেন।
৪. আমরা নিজেদের সম্পর্কে যা ভাবি, ভবিষ্যতে আমরা সেটাই হয়ে যাই। সুতরাং কি চিন্তা করছ তা ভালো করে খেয়াল করো। কথাবার্তা পরের ব্যাপার। চিন্তাভাবনাগুলো জীবন্ত। এরা অনেক দূর বিস্তারিত।

৫. কঠোর বাস্তবতার মুখোমুখি হও। কঠিন পরিস্থিতিতে নাম পড়লে কখনো কিছু শিখতে পারবে না। সাহসের সাথে মোকাবেলা করো। বানরের মত জীবনের কষ্ট গুলো আবার ফিরে আসে। যদি আমরা জীবন থেকে পালাতে চাই।
৬. কখনো কোনদিন যদি তোমার সামনে কোন সমস্যা নাই আসে, তাহলে বুঝবে তুমি ভুল পথে চলেছ।

৭. জীবন একটা শক্ত সংগ্রাম। কঠোরভাবে তাকে মোকাবেলা করো। বশ না মেনে এগিয়ে চলো, আত্মা আরও শক্তিশালী।
৮. অন্যদের জন্য কাজ করলে একমাত্র তুমি বেঁচে থাকবে।
৯. সবচেয়ে বড় অপরাধ হলো নিজেকে দুর্বল ভাবা।

১০. তোমার নিজেকেই ভিতর থেকে বেড়ে উঠতে হবে। তুমি ছাড়া আর কেউ তোমাকে কিছু শেখাতে পারবে না। কেউ তোমাকে স্পিরিচুয়াল করতে পারবে না। তোমার আত্মাই তোমার প্রকৃত শিক্ষক।
১১. ভয় মানে মৃত্যু, ভয় মানে পাপ, ভয় হল নরক, ভয় সঠিক নয়। ভয় হল ভুল জীবন। সমস্ত নেগেটিভ চিন্তাভাবনা এবং ধারণা ভয়ের থেকে উৎপত্তি লাভ করে।
১২. হিরো হও। সব সময় বলো- আমার কোন ভয় নেই। আর এই কথাটা সবাইকে জানিয়ে দাও।