জেনে নিন মাইগ্রেনের কারন এবং এর থেকে মুক্তির উপায়

মাইগ্রেন এমন একটি অসুখ যা খালি চোখে দেখা না গেলেও যার এই অসুখ আছে সেই একমাত্র জানি এর কষ্ট এবং যন্ত্রণা। মাইগ্রেন থাকার ফলে মস্তিষ্কের স্বাভাবিক রক্ত প্রবাহ ব্যাহত হয়। মাথাব্যথা শুরুতেই মস্তিষ্কের বাইরে যে ধমনী গুড়িয়া আছে সেগুলি হয়ে যায়।মাথাব্যথার সঙ্গে বমি বমি ভাব হতে থাকে এবং রোগী দৃষ্টিবিভ্রম হতে পারে। এই ব্যথার উৎস কি? মাইগ্রেন একটি জিন ঘটিত রোগ। পরিবারের কারোর থাকলে অন্য কারোর থাকার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। মস্তিষ্কের ট্রাইজেমিনাল নার্ভ উত্তেজিত হলেই এই ব্যথা হয়। চিকিৎসকদের মত অনুযায়ী, সেরেটোনিন নামক কেমিক্যালের ভারসাম্য ব্যাহত হলে এই ব্যথা হয়। (Health Tips : Causes and remedies of Migraine headache)

মহিলাদের মাইগ্রেনের সমস্যা বেশি দেখা যায়। মহিলাদের শরীরে ইস্ট্রোজেন হরমোনের কারণে এই মাইগ্রেন বেশি হতে পারে।বেশিরভাগ মানুষদের অর্থাৎ মেয়েদের বয়োসন্ধির ক্ষণে প্রথম ঋতুস্রাব হওয়ার সময় মাইগ্রেনের সমস্যা শুরু হয়। আবার যে সমস্ত মহিলারা ওরাল কন্ট্রাসেপটিভ পিল খান, তাদের এই সমস্যা বেশি দেখা যায়।

কেন হয় এই ব্যথা? (Causes of Migraine)

১. পেট খালি থাকলে মাইগ্রেনের ব্যথা অথবা সমস্যা শুরু হতে পারে। খালি পেটে থাকলে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা দেখা যায় যা মাইগ্রেনের সমস্যা কে আরো বাড়িয়ে দিতে পারে।

২.আবহাওয়া এর অন্যতম কারণ হতে পারে।অতিরিক্ত রোদে ঘোরাঘুরি কারণে অথবা অতিরিক্ত গরম বা অতিরিক্ত আর্দ্রতা তারতম্য হবার কারনে মাইগ্রেনের ব্যাথা শুরু হয়ে যায়।

৩. যারা অনেক বেশি মানসিক চাপ নিয়ে একটানা কাজ করে চলেন, তারা বেশি আক্রান্ত হতে পারেন মাইগ্রেনে। খুব মানসিক চাপ থাকলে একটি কাপ লেবু চা খেয়ে নিন। নির্দিষ্ট সময়ে খাওয়া দাওয়ার অভ্যাস করুন।

৪. অনেক সময় অতিরিক্ত চিনি জাতীয় খাবার খেয়ে ফেললে আমাদের শরীরে অতিরিক্ত ইনসুলিন উৎপাদন হতে পারে। এর ফলে আমাদের রক্তে সুগারের মাত্রা নেমে যায়।হঠাৎ ব্লাড সুগারের মাত্রা তারতম্য হওয়ায় মাইগ্রেনের ব্যাথা শুরু হয়ে যায়।

৫.অতিরিক্ত আওয়াজ অথবা জোরে গান শুনলে মাইগ্রেনের সমস্যা হতে পারে।

৬.অতিরিক্ত কোনদিন ঘুমিয়ে ফেললে মাইগ্রেনের ব্যাথা শুরু হয়ে যায়।

৭. যারা নিয়মিত কফি জাতীয় পানীয় খেতে অভ্যস্ত তারা যদি হঠাৎ করে তা বন্ধ করে দেয় তাহলে মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হতে পারে।।

সমাধান (How To Get Relief From Migraine):

১)প্লাস্টিকে কিছু বরফের টুকরো নিয়ে মাথায় ঘষে নিন।

২) ভিতামিন b2 এর পরিমাণ শরীরে বেড়ে গেলে মাছ মাংস ডিম অথবা যে কোন দুগ্ধজাত খাবার খেলে মাইগ্রেনের ব্যাথা হয়না।

৩) মাইগ্রেনের ব্যথা থামাতে প্রতিদিন গরম জলে গোলমরিচ মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যাবে।

Causes and remedies of Migraine headache
জেনে নিন মাইগ্রেনের কারন এবং এর থেকে মুক্তির উপায়