ফুলশয্যার রাতে গুনগুন কিভাবে স্বামী সৌজন্য কে আদর করলেন ?

অবশেষে ঘটে গেল সৌজন্য এবং গুনগুনের সেই বহুপ্রতীক্ষিত ফুলশয্যা। প্রিয় পাঠকেরা এই পোস্টে আমি আপনাদের কাছে স্টার জলসা নেটওয়ার্কের খড়কুটো সিরিয়ালের নায়ক নায়িকা সৌজন্য মুখার্জি এবং স্রোতস্বিনী মুখার্জি ওরফে গুনগুন এর ফুলশয্যা রাতের সমস্ত দৃশ্য বর্ণনা করতে চলেছি। (Star Jalsha Bangla Serial Khorkuto Update : How bou Gungun aka Trina Saha loves his swami Soujanya Mukherjee aka Koushik Roy aka Babin in Ful Sajya night)

প্রথমে গুনগুন তার সম্বন্ধীদের কাছে জানতে চায় যে ফুলশয্যার রাত্রে কি করতে হবে ? আর প্রথমে সৌজন্যের কাকিমা ননীবালা মুখার্জি ওরফে রত্না ঘোষাল জানান,”হাতের উপর হাত রাখতে হবে।” আর গুনগুন এই কথা মুখস্ত করে নেয়। (Ratna Ghoshal as Nonibala Mukherjee)

এর পরবর্তী উপদেশ দেন সৌজন্যের কাকা সিদ্ধেশ্বর মুখার্জি। তিনি জানান যে, এরপর কাছাকাছি যেতে হবে। তিনি আরও খোলসা করে বলেন যে, খাটের উপর শোওয়ার পর স্বামীর দিকে ধীরে ধীরে ঘেঁষতে হবে। অর্থাৎ প্রথমে একটু দূরে শুতে হবে। তারপর ধীরে ধীরে গুনগুনকে একদম সৌজন্যর গায়ের কাছে চলে যেতে হবে। (Dulal Lahiri as Uncle Siddheshwar Mukherjee)

Basor Raat e Gungun and Babin aka Soujanya
বাসর রাতে স্বামী সৌজন্যর সাথে বউ গুনগুন (Credit : Star Jalsha)

সিদ্ধেশ্বর মুখার্জির চরিত্রে অভিনয় করা দুলাল লাহিরি আরও জানালেন যে, তার ভাইপো সৌজন্য হয়তো দূরে সরে যেতে পারে। আবার নাও যেতে পারে। তবে সৌজন্য যদি দূরে সরে যায় তাহলে গুনগুন ওরফে তৃণা সাহা কে আরো ঠেলতে হবে।

এইভাবে ঠেলতে ঠেলতে তাকে একদম খাটের কোনায় নিয়ে যেতে হবে। আর সেই মুহুর্তে হয়তো সৌজন্য তার কাছে জানতে চাইতে পারে যে কেন সে তাকে এরকমভাবে ঠেলছে ? তখন গুনগুন অর্থাৎ সৌজন্যর বউকে উত্তর দিতে হবে যে, ফুলশয্যার রাতে বউয়ের কাছ থেকে স্বামী এত দূরে থাকে না। তাই সে তার স্বামীর কাছে ঘেঁষছে।

এরপরের ধাপটা হবে খুবই রোমান্টিক। এই ধাপে গুনগুন কে তার স্বামী সৌজন্য ওরফে বাবিনের গালে চুমু দিতে হবে। তবে এই কথা শুনে প্রথমে গুনগুন খুব অনিচ্ছা প্রকাশ করে। সে জানায় যে ওই দাড়ি ভর্তি মুখে চুমু দিতে পারবে না। তবে বাবিনের কাকিমা জানান যে, একবার ব্যাপারটা করার পর তার কাছে ভালোই লাগবে।

এবার চলুন চলে যাই মূল পর্বে। সম্বন্ধীদের পরামর্শ অনুসারে, গুনগুন প্রথমে তার স্বামীর বুকের উপর হাত রাখে। এরপর ঘেঁষে একদম কাছে চলে আসে। আর বাবিন তখন শুনে যে সে কেন তার কাছে আসছে এইভাবে ?

তখন কোন কোন উত্তর দেয় যে ফুলশয্যার রাতে স্ত্রী স্বামীর কাছে যাবে না তো কি করবে ? আর অবশেষে বউ গুনগুন, স্বামীর গালে চুমু দিয়ে দেয়। তো পাঠকেরা কেমন লাগলো আপনাদের ?