বর্ষায় বাড়ি-ঘরের ড্যাম্প থেকে মুক্তি পাবেন কি করে ? র‌ইল কিছু সাধারণ টিপস।

অনেক সময় বর্ষাকালে ঘরের দেওয়ালে ড্যাম্প (Damp on walls) পড়ে বিশ্রী কালো ছোপ ছোপ দাগ হয়ে ঘরের সৌন্দর্য নষ্ট করে। এই দেওয়ালে ড্যাম্প থেকেই ঘরে স্যাঁতস্যাঁতে গন্ধ হয়। এর ফলেই বাড়ির আত্মীয়স্বজনদের কাছে মজার পাত্র হতে হয় আপনাকে। বাড়ি ঘরের ড‍্যাম্প বা স‍্যাঁতস‍্যাঁতেভাব স্বাস্থ্যের পক্ষেও ক্ষতিকর। আপনার হাতেই আছে এই সমস্যা থেকে মুক্তির সমাধান। সেগুলো জেনে নিন একঝলকে (Lifestyle Solutions: How to Prevent Damp On Walls ?)।

★ প্রথমে ঘরের দেওয়ালে ড্যাম্পের উৎস জানতে হবে।

★ কোন কোন জায়গা থেকে ড্যাম্প ছড়াচ্ছে তা নিশ্চিত করুন।

★ কোন জায়গা থেকে চুঁইয়ে জল পড়লে, দেওয়ালে সেই অংশ ভিজে থাকে এবং সেই ভিজে স্থান থেকেই ড্যাম্পের উৎপত্তি।

★ চুইয়ে পড়া জলের উৎস জেনে তা মেরামত করতে হবে।

★ ঘরের ভেন্টিলেশনে দিকে নজর রাখতে হবে। কারণ অনেক সময় ভেন্টিলেশন থেকেও জল আসতে পারে। যা সৃষ্টি করতে পারে ড‍্যাম্প বা ভেজাভাব।

★ দীর্ঘদিন কোন দেওয়াল জুড়ে আসবাবপত্র থাকলে, সেই দেওয়ালে ড্যাম্প পড়তে পারে। তাই কিছু দিন অন্তর অন্তর আসবাবপত্রের জায়গা পাল্টে দিন।

★ অনেক সময় বাড়ির ছাদে গাছের টব রাখলে সেখানে ড‍্যাম্পের সমস্যা হতে পারে।

★ দীর্ঘদিন একই জায়গায় গাছের টব থাকলে, সেই টব চুঁইয়ে বাড়ির ছাদের ড্যাম্প সৃষ্টি করতে পারে। তাই কিছুদিন অন্তর টবের স্থান পাল্টে দিন। প্লাস্টিকের পাত্রের উপরে টব রাখুন।

★ নির্দিষ্ট সময়ের ব্যবধানে ছাদ পরিষ্কার করুন। এর ফলে জল-সোপের মতো সমস্যা থেকে বাড়ির ছাদ মুক্তি পাবে।

★ ঘর সবসময় খোলামেলা রাখতে চেষ্টা করুন। জানলা-দরজা খোলা রাখুন যাতে আলো-বাতাস চলাচল করতে পারে। এর ফলে ঘরে স্যাঁতস্যাঁতে গন্ধ এবং ড্যাম্প থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

★ অনেক সময় বাড়ির ছাদে ফাটল ধরে এবং সেখান থেকে চুঁইয়ে জল পড়ায় ঘরের সিলিং-এ দাগ পড়তে পারে। সে ক্ষেত্রে ছাদ মেরামতের প্রয়োজন। সমস্ত প্লাস্টার ফেলে দিয়ে, নতুন করে মেরামত করলে এই ড্যাম্প এর হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

★ এছাড়া বর্তমানে বাজারের “মোল্ড রেজিস্ট” রং বা ড্যাম্প থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য দেওয়ালে রং পাওয়া যায়। সেই রং একবার করিয়ে নিলে দীর্ঘদিন ড‍্যাম্প থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

★ জিপসাম প্লাস্টার ড‍্যাম্পের ক্ষেত্রে বেশ উপযোগী। এই প্লাস্টার একবার করালে ড‍্যাম্প বা স‍্যাঁতস‍্যাঁতেভাবের সম্ভাবনা অনেকটাই কম হয়।

এছাড়াও বাড়ির প্রতি একটু বাড়তি নজর ড‍্যাম্প থেকে রক্ষা পেতে সাহায্য করে। যখনই ড‍্যাম্পের সূত্রপাত হচ্ছে, তখনই পদক্ষেপ নিলে সমগ্র বাড়িতে ড্যাম্প ছড়িয়ে পড়ার মতো সমস‍্যার হাত থেকে রক্ষা করা যায় (Take Steps At The Very Beginning)।
©তিথি দাস