ঠকঠক এই শীতের মধ্যে ভারতে প্রবেশ করতে চলেছে পশ্চিমী ঝঞ্জা

শীতের প্রথম দিকটা সঠিকভাবে অনুভূত না হয়ে থাকলেও পরের সময়টা তে বেশ কাঁপিয়ে দিল উত্তুরে হাওয়া। বড়দিনের আগে পর্যন্ত ঠান্ডার রেশ ছিল প্রায় হাড় কাঁপানো। তবে এই হাড় কাঁপানো পর্যন্তই আটকে থাকবে শীত। (Weather Report Tomorrow : Western storm may hit India during this freezy weather)

ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংস খেলতে চলেছে এবার শীত। জানা গেছে, এই সপ্তাহের শেষে এই শীতের প্রভাব আরো বাড়বে এবং সেটি বেশ কিছুদিন বজায় থাকবে। আবহাওয়া দপ্তর থেকে জানা গেছে যে উত্তর-পশ্চিম ভারতের রবি এবং সোমবারের দিকে তুষারপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে যার জন্য তাপমাত্রা আরও নামতে পাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই তাপমাত্রা নামার কারণে ও বাংলাতে শৈত্যপ্রবাহের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে বলেই জানা গেছে। আজ সকালে কলকাতা সহ কলকাতার বিভিন্ন অঞ্চলে কুয়াশা সামান্য ছিল এবং সারাদিনের আকাশ ও বেশ পরিষ্কার আজকে কলকাতার তাপমাত্রা ১২.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি নিচে রয়েছে।

গতকাল যেই তাপমাত্রা ছিল ২৫.৭ ডিগ্রি। জলীয়বাষ্পের পরিমাণ বাতাসে রয়েছে প্রায় ৯৮ শতাংশ। এরইমধ্যে শোনা গেল পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রবেশের কথা। জানা গেছে শনিবারই উত্তর এবং পশ্চিম ভারতে প্রবেশ করতে চলেছে পশ্চিমী ঝঞ্জা অন্যদিকে সোম এবং রবিবার তুষারপাত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে জম্মু কাশ্মীর লাদাখ হিমাচল প্রদেশ উত্তরাখণ্ড ইত্যাদি অঞ্চলে।

পাঞ্জাব সহ হরিয়ানা চন্ডিগড় দিল্লিতেও আবারো দ্বিতীয় দফায় শৈত্যপ্রবাহে খবর আপাতত মিলেছে। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রবেশের ফলে আরো এক ইনিংস খেলতে চলেছে শীত। এর প্রভাবে ঠান্ডা আরো পড়তে পারে বলে জানা গেছে অন্যদিকে এর প্রভাবে তামিলনাড়ু পন্ডিচেরিতে আবার বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখা গেছে।

Western storm may hit India during this freezy weather
ঠকঠক এই শীতের মধ্যে ভারতে প্রবেশ করতে চলেছে পশ্চিমী ঝঞ্জা